মিজানুর রহমান বাদল: মানিকগঞ্জের সিংগাইরে আয়েশা বেগম(৮৫) বৃদ্ধা মার স্থান হয়েছে গরুর রাখার গোয়াল ঘরে। তিনি ৩ সন্তানের জননী। সন্তানদের অবস্থায় ভালো হলেও তাদের মায়ের ভরন পোষন না করে প্রায় ৬ মাস ধরে ঘর থেকে বের করে রেখেছে গোয়াল ঘরে। এ ঘটনায় জড়িত ২ ছেলে ও এক ছেলের স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে থানাপুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, বড় ছেলে মোঃ কলম মিয়া (৫১) ও মোঃ মোস্তফা ওরফে মস্তা (৪৫) এবং প্রবাসী অপর ছেলে চানু মিয়ার স্ত্রী মর্জিনা(৩২)।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চারিগ্রাম ইউনিয়নের মধ্য চারিগ্রাম এলাকায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,অসহায় বৃদ্ধা ওই এলাকার মৃত.হযরত আলী ওরফে আজারির স্ত্রী।সন্তানদের আর্থিক অবস্থা স্বচ্ছল হলেও তারা তাদের মায়ের ভরন পোষন না করে প্রায় ৬ মাস ধরে নিজের থাকার ঘর থেকে বের করে গরু রাখার গোয়াল ঘরে রেখে দেয়। এ ছাড়া বৃদ্ধা মাকে তারা ঠিকমত খাবার দিতেন না এমনকি সেবা যত্নও করতেন না তারা। এছাড়া প্রতিবেশীরা ওই অসহায় বৃদ্ধাকে খাবার দিলে সন্তানদের স্ত্রীরা তাদের সঙ্গে খারাপ আচারণ করতেন এবং নানা ধরনের অসৌজন্যমূলক ব্যবহার করতো বলেও অভিযোগ রয়েছে ।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, বৃদ্ধা মা আয়শা বেগম দীর্ঘদিন ধরে রোগে ভুগছিলেন। তার তিন সন্তান কেউ খেয়াল রাখতো না। এতে সে অচল হয়ে পড়লে বড় ছেলে কলম মিয়া দেখভাল করার দায়িত্ব নিলে কিছু দিন ঘরে রাখলেও পরে শিকলে বেধে গোয়াল ঘরে রাখায় হয়। পরে তার স্ত্রী বিদেশ থেকে ফেরত আসে। এরপর তার উপর অত্যাচার শুরু করে। সেই সাথে চানু বিদেশ যাওয়ার পর তার স্ত্রী শ্বাশুড়ি আয়শা বেগমকে মারধরসহ খাবার না দিয়ে একই গোয়ালঘরে রাখে প্রায় ৬ মাস। গত ৭ দিন যাবৎ মেঝ ছেলে মোস্তফা ওরফে মস্তা তার নিজ গোয়াল ঘরে রেখে দেয়। প্রতিবেশী কয়েকজন মহিলা আয়শা বেগমকে দেখতে যায়। এ সময় বৃদ্ধা তাদের কাছে খাবার চায়। তারা দোকান থেকে রুটি এনে খাওয়াতে গেলে তাদের সাথে ঝগড়া করার অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় গত রবিবার রাতে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। এমনকি খোঁজ নিয়ে জানা যায়,প্রায় ৬ মাস আগে বৃদ্ধাকে ঘর থেকে বের করে গোয়াল ঘরে রাখেন তার সন্তানরা। এ ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে সিংগাইর থানার ওসি রবিবার রাতে পুলিশ ঘটনার সত্যতা পায়। ছেলে কলম, মস্তা ও চানুর স্ত্রী মর্জিনাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। সোমবার সকালে আসামীদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ এদিকে সিংগাইর থানার ওসি সফিকুল ইসলাম মোল্যার তত্বাধানে অপর ছেলের স্ত্রী বিলকিস আক্তারকে বর্তমানে সেবা যত্নের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভিকটিমের বড় ছেলে কলম মিয়া কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

এ ব্যাপার উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিপন দেবনাথ বলেন-আমি বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সফিকুল ইসলাম মোল্যা বলেন, বৃদ্ধা মাকে অবহেলার দায়ে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদেরকে (১৩ জুন) সোমবার কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। সমাজে যাতে এ রকম জঘন্যতম নৈতিক অবক্ষয় না ঘটে সে দিকে সকলের সচেতন হওয়া জরুরী।

Previous articleপাঁচবিবি পৌর নির্বাচন: মেয়র পদে ১৬ জনের দলীয় তালিকা
Next articleতাহিরপুরে হাওর ও নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি, ঢেউয়ের আতঙ্কে হাওরবাসী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।