বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় মাদরাসায় যাওয়ার পথে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালানো বখাটেকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী ও মাদরাসার ছাত্ররা।

রোববার নান্টু সিকদার (৩০) নামের ওই বখাটেকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বখাটে নান্টু মঠবাড়িয়া উপজেলার উলুবাড়িয়া গ্রামের ননী সিকদারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকালে ওই ছাত্রী পরীক্ষা দেয়ার জন্য মাদরাসায় যাচ্ছিল। পথে রন চৌকিদারের বাড়ির সামনে নির্জন রাস্তায় বসেছিল বখাটে নান্টু। এ সময় বৃষ্টি শুরু হলে বখাটে নান্টু ওই ছাত্রীকে টেনে-হেঁচড়ে সুপারি বাগানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। উপায় না পেয়ে ওই ছাত্রী চিৎকার দিয়ে দৌড়ে গিয়ে পথচারী এক বৃদ্ধকে ঝাপটে ধরে। মাদরাসার ছাত্র ও এলাকাবাসী ঘটনাটি জানতে পেরে বখাটেকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ছাত্রীর ফুফা আ: খালেক হাওলাদার শনিবার রাতে মঠবাড়িয়া থানায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ মামলায় বখাটে নান্টুকে গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার আদালতে সোপর্দ করেছে।

জানখালী উলুবাড়িয়া হামিদিয়া মাদরাসার সুপার মাওলানা শওকাতুল আলম জানান, ঘটনার পর মাদরাসার ছাত্র ও স্থানীয়রা বখাটে নান্টুকে আটক করে মাদরাসায় নিয়ে আসে। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ বখাটে নান্টুকে আটক করে নিয়ে যায়।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: নূরুল ইসলাম বাদল জানান, মাদরাসাছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আসামি নান্টুকে রোববার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Previous articleসোনারগাঁওয়ে সিএনজিতে একা পেয়ে জঙ্গলে নিয়ে নারী যাত্রীকে ধর্ষণ
Next articleদেশে বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ, ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৫৯৬
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।