বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানীতে বিয়ের বাড়িতে নিজের গায়ে আগুন দেয়া সুফিয়া বেগম (৫৫) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার সকালে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

নিহত সুফিয়া উপজেলার পত্তাশী ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের মুনসুর আলী হাওলাদারের স্ত্রী।

এর আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় পার্শ্ববর্তী মোরেলগঞ্জ উপজেলার হোগলাবুনিয়া গ্রামে ভাইয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে অভিমান করে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন তিনি।

নিহত সুফিয়ার বড়ভাই আব্দুর রশিদ জানান, তার নাতির বিয়ে উপলক্ষে দুদিন আগে বোন তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়ির পেছনে পুকুরের পাড়ে সুফিয়া নিজের গায়ে নিজে আগুন দেয়। পারে তাকে দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে সে মারা যায়।

নিহতের ছোট ছেলে রমিজ উদ্দিন বলেন, দুই দিন আগে মামা বাড়িতে মাকে বেড়ানোর জন্য নিয়ে যায়। কী কারণে মা আগুনে পুড়ে মারা গেছে জানি না।

এ প্রসঙ্গে ইন্দুরকানী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ এনামূল হক জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleতিলকপুরে একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত, ৬ ঘন্টা পর রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক
Next articleপদ্মা নদীর পানিতে ডুবে বুয়েট শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় মামলা, ১৫ বন্ধু গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।