এস কে রঞ্জন: গভীর সমুদ্রে মাছ শিকার করতে গিয়ে ঝড়ে কবলে পরে ৭ টি মাছ ধরা ট্রলারসহ ১১৭ জেলে নিখোঁজ হয়। এর মধ্যে রবিবার দুপুর ১ টার দিকে এফবি শাহ-আলম ট্রলারের ১৩ জেলেকে উদ্ধার করে মৎস্য বন্দর মহিপুরে আড়ৎ ঘাটে নিয়ে আসা হয়েছে। একই দিন নিজামপুর কোস্টগার্ডের সদস্য ইঞ্চিন বিকল হওয়া এফবি মায়ের দোয়া নামের একটি মাছ ধরা ট্রলারসহ ২৩ জন জেলেকে উদ্ধার করেছে। এছাড়া নিখোঁজ জেলেদের মধ্যে এফবি স্বাধীন ট্রলারের ১১ জেলে পাশর্^বর্তী দেশ ভারতে আশ্রায় নিয়েছে এমন তথ্য জানা গেছে। এবং ৪৭ জন জেলে এখন পযর্ন্ত উদ্ধার হয়েছে বলে স্থানীয় ও জেলেদের সূত্রে জানা গেছে। আরও ৭০ জন জেলে এখন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানাযায়।

এদিকে নিখোঁজ জেলেদের ফিরে আসার অপেক্ষায় স্বজনরা প্রহর গুনছে দেশের অন্যতম মৎস্য বন্দর আলীপুর-মহিপুর আৎড় ঘাটে। গভীর সমুদ্র থেকে ট্রলার ঘাটে ফিরে আসলেই ছুটে যাচ্ছে স্বজনরা।নিখোঁজ জেলেদের সন্ধান না পেয়ে স্বজনদের কান্নায় ভারি হচ্ছে আকাশ-বাতাস। কুয়াকাটা-আলীপুর মৎস্য আড়ৎদার মালিক সমিতির তথ্য মতে, ঝড়ের কবলে পড়ে শুক্রবার (১৯ আগস্ট) নিখোঁজ হয় এফবি জলিল, এফবি আলী হোসেন, এফবি মায়ের দোয়া, এফবি রাকিবুল, এফবি ওবায়দুল, এফবি জাবের, এফবি আবদুল্লাহ। এছাড়া ১১ জেলের পাশর্^বর্তী দেশ ভারতে আশ্রয় নিয়েছে বলে তারা জানান। উদ্ধার হওয়া জেলেরা জানান,সাগরের অনেক ঢেউ ছিলো। তাই তীরে আসতে অনেক চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে পথ হারিয়ে ফেলেছি। তখন এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে আমরা সাগরে ভাসতে থাকি তখন নিজামপুর কোস্টগার্ডের সদস্যরা আমাদের উদ্ধার করেন। মহিপুর মৎস্য আড়ৎদার সমবায় সমিতির সাধারন সম্পাদক মো.রাজা মিয়া বলেন, বিক্ষিপ্ত ভাবে মিসিং ট্রলারের সঠিক তথ্য দেয়া মুসকিল হয়ে পড়েছে। তবে আলীপুর এবং মহিপুরের আড়ৎঘাটে হাজার হাজার মানুষ ভীড় করছেন নিখোঁজ জেলেদের সন্ধানে। ট্রলার ঘাটে আসলেই মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ছে ট্রলারটির দিকে। সে দৃশ্য হৃদয় বিদারক বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান।

কুয়াকাটা-আলীপুর মৎস্য আড়ৎদার মালিক সমিতির সভাপতি মো. আনছার উদ্দিন মোল্লা বলেন,নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধার তৎপরতা রয়েছে। তবে সাগরে ঝড়ের কবলে পরে কিছু জেলে ভারতে অবস্থন করছে। সেখানকার মৎস্য ইউনিয়নের সাথে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। নিজামপুর কোস্ট গার্ডের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার সেলিম মন্ডল বলেন, সাগরের মোহনার আনুমানিক ৬ নটিকাল মাইল দুরে এফবি মায়ের দোয়া নামের একটি ট্রলার ইঞ্জিন বিকল হয়ে সমুদ্রে ভাসতে থাকে। পরবর্তিতে ওই ফিসিং ট্রলারসহ ২৩ জেলেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সব জেলেদের বড়ি চট্টগ্রাম জেলার বাঁশ খালি উপজেলার বাসিন্দা। উদ্ধারকৃত জেলেদেরকে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে টহল টিম সাগরে রয়েছে এবং উদ্ধার তৎপরতাও চলছে। এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

Previous articleনোবিপ্রবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৩২ ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন ও হয়রানির অভিযোগ
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে ২টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেফতার ১
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।