মাসুদ রানা রাব্বানী: রাজশাহীর পুঠিয়ার পৌর মেয়র ও সাবেক উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আল মামুন খানকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) ভোরে বরগুনা জেলা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ- পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম।

পুলিশ জানায়, কলেজ ছাত্রীর ধর্ষণ মামলার পরই মেয়র আত্মগোপনে চলে যান। তথ্যপ্রযুক্তির সাহায্যে তাকে বরগুনা জেলা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার রাত ১২ টায় রাজশাহী কলেজের ওই শিক্ষার্থী মামলার এজাহারে জানিয়েছেন, গত বছর স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হলে তিনি তালাকের জন্য মেয়রের সঙ্গে দেখা করেন। সেই সূত্র ধরে মেয়র মামুন তার দায়িত্ব নেয়া ও চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

মামলা দায়েরের পর পুলিশের পক্ষ থেকে ভুক্তভোগীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের (ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস) ওসিসি’তে ভর্তি করা হয়। এ ছাড়াও গত বছরের শুরুতে দুর্গাপুরের বাসিন্দা এক হাসপাতালের সেবিকা মেয়র মামুনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছিলেন। যদিও অভিযুক্তের পরিবারের দাবি করছে, সে মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। এদিকে ভুক্তভোগীর পরিবার ও স্বজনরা সঠিক তদন্ত ও বিচার দাবি করেছেন।

Previous articleরাজশাহীতে জমি সংক্রান্ত মামলার আসামী ৩ জন সরকারী চাকরিজীবী, একজন বরখাস্ত
Next articleনোয়াখালীতে বৃদ্ধকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।