পাভেল মিয়া: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে মধ্যরাতে অন্যের স্ত্রীর ঘর থেকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক হয়েছেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক। পরে ৯৯৯ নম্বরে কল করে দুজনকেই পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

আটককৃত শিক্ষক ফুলবাড়ী উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের ঘোঘারকুটি গ্রামের আফতাব উদ্দিন খন্দকারের ছেলে মো. নুরুজ্জামান খন্দকার। তিনি উপজেলার উত্তর ঘোঘারকুটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত । অন্যদিকে শিক্ষকের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় আটক হওয়া ওই নারীর(জান্নাতি) বাড়ি লালমনিরহাটের আদিতমারি উপজেলায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের পুর্ব ফকিরপাড়া জকুরটল এলাকার যুবক তাজুল ইসলামের সাথে প্রায় ৭ বছর পূর্বে তাদের বিয়ে হয়। স্বামী তাজুল ইসলাম ঢাকায় চাকুরী করার সুবাদে তার স্ত্রী জান্নাতী বেগম (২৭) সন্তানসহ বাড়ীতে একা থাকেন। স্বামী বাড়ীতে না থাকায় উপজেলার উত্তর ঘোগারকুটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও বড়ভিটা ইউনিয়নের ঘোগারকুটি গ্রামের আফতাব উদ্দিন খন্দকারের ছেলে দুই সন্তানের জনক নুরুজ্জামান খন্দকারের (৪৮) সঙ্গে পরিচয় হয়। সেখান থেকে ধীরে ধীরে মন দেয়া-নেয়া শুরু, এরপর থেকেই পরকীয়ায় মেতে ওঠেন দু’জন। এক সময় তাদের মধ্যে অনৈতিক সম্পর্কের সৃষ্টি হয়। ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে অনেকবার তাদেরকে সতর্ক করা হলেও তাঁরা থামেননি।

দীর্ঘদিন ধরে মেলামেশা চলতে থাকার এক পর্যায়ে বুধবার গভীর রাতে আবারও পরকীয়া প্রেমিকার সাথে মিলিত হতে যান শিক্ষক নুরুজ্জামান। পরে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি বুঝতে পেরে গভীর রাতে ওই নারীর ঘর থেকে তাকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিলে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই শিক্ষককে আটক করে এবং প্রেমিকা জান্নাতী বেগমকে হেফাজতে নেয়।

ভু্ক্তভোগী জান্নাতী বেগম জানান, শিক্ষক নুরুজ্জামান বিয়ে করার কথা বলে দীর্ঘদিন থেকে আমার সাথে সম্পর্ক করে আসছে। সে আমাকে বিয়ে না করলে আমি আত্মহত্যা করবো।

উত্তর ঘোগারকুটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ছাবেদ আলী জানান, শুনেছি নারীঘটিত কারনে সহকারী শিক্ষক নুরুজ্জামান খন্দকার ফুলবাড়ী থানা হাজতে আটক হয়েছেন। ৮ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) তিনি বিদ্যালয়ে উপস্থিত হননি। উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশরাফুজ্জামান জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফজলুর রহমান আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সবশেষ পাওয়া তথ্যমতে, শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রেমিকার কোন অভিযোগ না থাকায় ১৮ ঘন্টা পর তাদেরকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Previous articleফুলবাড়ীতে বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে তিন বছরের শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক
Next articleরংপুরে পুলিশ-বিএনপির সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ৫০, ছাত্রলীগের প্রতিবাদ মিছিল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।