জয়নাল আবেদীন: বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা দেবী চৌধুরানী পল্লী উন্নয়ন কেন্দ্র আয়োজিত রংপুর জেলা এবং বিভাগের নদ-নদীর বর্তমান অবস্থা নিয়ে আলোচনা সভা ও আয়োজন করে । সভায় বক্তারা বলেছেন রংপুর বিভাগে নদ-নদীর সংখ্যা কত তার এখন পর্যন্ত কোন পরিসংখ্যান নেই । তবে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড বাংলাদেশের নদ-নদী শীর্ষক ছয় খন্ডের বই প্রকাশ করেছে তাতে কাগজ কলমে রংপুর বিভাগে ৮২টি নদীর কথা বলা হয়েছে । অথচ এই বিভাগে প্রকৃত নদীর সংখ্যা ১৬০টির অধিক ।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় সংস্থার নির্বাহী পরিচালক নুরুল ইসলাম দুলুর সভাপতিত্বে রংপুর বিভাগের নদ-নদীর সংখ্যা ও বর্তমান অবস্থা বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রংপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদার রহমান মিলন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন নারী নেত্রী ও সংগঠক মোশফেকা রাজ্জাক ।

অনুষ্ঠানে নদী বিষয়ক মুল প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন একেএম মাহফুজ আলম । আলোচনায় অংশ নেন সিনিয়র সাংবাদিক জয়নাল আবেদীন, বেসরকারী সংস্থা স্যাডোর নির্বাহী পরিচালক সারোয়ার জামাল খন্দকার , উজ্জল চক্রবর্তী , মোছাম্মৎ ফারহানা বেগম কবির মিয়া এবং আসিফ পারভেজ। অনুষ্ঠানে বক্তারা আরো বলেন রংপুর বিভাগে কলকারখানা কম হওয়ার কারণে নদীর পানি দুষিত হওয়ার আশংকা অনেক কম । তারপরও অনেক স্থানেই রয়েছে নদী দুষণ । রংপুর শহরের যত ময়লা পানি তা পতিত হয় ঘাঘটে । নগরির মাহীগঞ্জ এলাকায় ইছামতি নদীও দুষণের শিকার । নীলফামারীর সৈয়দপুরের কারখানার বর্জ্য গিয়ে পড়ে বামনডাঙ্গা ও খড়খড়িয়া নদীতে । পঞ্চগড়েরর বোদা পৌরসভার পাথরাজ নদী পরিনত হয়েছে ভাগাড়ে ।

বক্তারা আরো বলেন দেশের অন্যান্য নদীর মত পানির অভাবে নব্যতা হারিয়ে অস্তিত্ব বিলীনের মুখে রংপুর জেলার ২৮টি নদ-নদী আর পুরো অঞ্চল জুড়ে ৫০টি নদী এখন মৃত প্রায় । অথচ রংপুরের এতোগুলো নদী থাকলেও সবগুলোর স্বীকৃতি নেই । তবে এই নদী গুলোর অতীত খুবই সমৃদ্ধ ছিলো ।

Previous articleচাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে নীলগাই ধরলো জনতা
Next articleস্পষ্টভাবে বলে দিয়েছি এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাব না: আমীর খসরু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।