মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাসাবেক প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট এবাদুর রহমানের নামাজে জানাজা সম্পন্ন

সাবেক প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট এবাদুর রহমানের নামাজে জানাজা সম্পন্ন

মোঃ জালাল উদ্দিন: মৌলভীবাজারের (বড়লেখা ও জুড়ী) ১ আসনের সাবেক চার বারের সংসদ সদস্য, বড়লেখার কিংবদন্তি সাবেক প্রতিমন্ত্রী, আইনজীবী ও কেন্দ্রীয় বিএনপি’র নির্বাহী কমিটির সদস্য, মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এবাদুর রহমান চৌধুরী (৭৮) বুধবার বিকেল তিনটার সময় ঢাকায় ইবনে সিনা হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না বিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। দীর্ঘদিন ধরে তিনি বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন।

বৃহস্পতিবার ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ইং, সকাল ১১ টার সময় পিসি উচ্চ বিদ্যায়ল মাঠে হাজার হাজার মানুষের সমাগমে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। শেষে অশ্রুশিক্ত বিদায় জানান শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

বর্ষিয়ান সাবেক পার্লামেন্টারিয়ান অ্যাডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরী মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, মৌলভীবাজার-১ আসনের সাবেক চার বারের সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এবং পরবর্তীতে তথ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হিসেবে তৎকালীন সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি সংসদ সদস্য ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী থাকাকালীন তার নির্বাচনী এলাকা মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা ও জুড়ী) আসনে অভূতপূর্ণ উন্নয়ন করেন। শিক্ষা ও যোগাযোগ ক্ষেত্রের তার অবদান আজও জনমনে অম্লান।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বুধবার বাদ মাগরিব ঢাকার লালমাটিয়া ‘সি’ ব্লক জামে মসজিদে মরহুম অ্যাডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরীর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি নেওয়ার পথে মৌলভীবাজার শহরে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয় ও সকাল এগারোটায় সময় তার নির্বাচনী এলাকা বড়লেখার পাথারিয়া মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। শেষে নিজ গ্রাম দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউনিয়নের গাংকুলে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

অ্যাডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরী ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান থেকে সক্রিয় রাজনীতি শুরু করেন। মৌলভীবাজার জেলা বারে তিনি আইন পেশা শুরু করলেও পরবর্তীতে তিনি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী হিসেবে প্র্যাক্টিস শুরু করেন। তিনি ১৯৮৮ সালে চতুর্থ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-১ আসন থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

একই আসন থেকে তিনি পুনরায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে ১৯৯১ সালের পঞ্চম, পরে ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে ষষ্ঠ ও সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় বিএনপির প্রার্থী হিসেবে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি চারদলীয় জোট সরকারের আমলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এবং তথ্য মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

এ সময় তিনি এলাকার সর্বক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন করেন। ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনিত প্রার্থী অ্যাডভোকেট এবাদুর রহমান চৌধুরী আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী শাহাব উদ্দিনের নিকট পরাজিত হন। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির দলীয় মনোয়ন পেলেও অসুস্থতা জনিত কারণে তিনি তার মনোয়ন প্রত্যাহার করে নেন। এরপর থেকে ক্রমশঃ তার শারিরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments