সোমবার, জুন ২৪, ২০২৪
Homeসারাবাংলাউপজেলা পরিষদ নির্বাচন: চতুর্মুখী লড়াই হবে কলাপাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: চতুর্মুখী লড়াই হবে কলাপাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে

এস কে রঞ্জন: পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চতুর্মুখী লড়াই হবে বলে সাধারন ভোটারদের ধারনা।উপজেলা পরিষদের বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনা পারভীন সীমাসহ চারজন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়ে নির্বাচনের মাঠে দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থনা করছে।

অন্যান্য প্রার্থীরা হলেন,লাইজু হেলেন লাকি,রাশিদা বেগম ও মোসাম্মৎ নাজমুন নাহার মলি। কে হবে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ভোটারা চায়ের দোকানে বশে যোগ্য প্রার্থী বাছাঁইয়ে চুল চেড়া বিশ্লেষনে ব্যস্ত রয়েছেন। জানা যায়,উপজেলা পরিষদের বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনা পারভীন সীমা গত নির্বাচনে প্রায় দুই-তৃতায়ংশ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তিনি নির্বাচিত হয়ে করোনা মহামারি থেকে শুরু করে যে কোন দূর্যোগে সময় জনগনের পাশে ছিলেন। বিশেষ করে বিগত বছরের বেশ কয়টি বন্যার সময় তার উপস্থিতি ও কার্যক্রম সাধারন মানুষের প্রসংশা কুড়িঁয়েছে। বন্যা কবলিত অসহায় মানুষদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ত্রাণ সামগ্রী বিতরনসহ তাদের খোঁজ খঁবর নিয়েছেন। এছাড়া,উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে দুইবার তিনি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে জনগনের সেবা দিয়েছেন। বিগত পাঁচ বছরে তার নামে কোন অনিয়ম বা দূর্ণীতির অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এসকল দিক বিবেচনা করে আগামী নির্বাচনে আবারোও তাকে নির্বাচিত করবে এমনটাই আশা করছেন তার ভোটার ও সমর্থকরা।

এদিকে,নাজমুন নাহার মলি ভাইস চেয়ারম্যান পদে নতুন মুখ হলেও সরকারি দলের নেতাকর্মীদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সমর্থন রয়েছে তার উপর। সেই বিবেচনায় বড় একটা ভোট ব্যাংক রয়েছে তার। এছাড়া, তিনি ধুলাসার ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ইউপি সদস্য হিসেবে তিনি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। এসময় তিনি অত্যান্ত নিষ্ঠা ও আস্থার সাথে জনগনকে সেবা দিয়েছেন। তার সেবার পরিধিকে উপজেলা ব্যাপী পৌঁছে দিতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন। এ নির্বাচনে সে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে এমনটাই প্রত্যাশা করেন অনেকে। অপরদিকে,অপর দুইজন প্রার্থী লাইজু হেলেন লাকি ও রাশিদা বেগম এর আগেও এই পদে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছেন। রাশিদা বেগম ২০১৪ ও অপরজন ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করেন। সামান্য ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হতে পারেননি। এরা দুজনেই পৌর মহিলা কাইন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে এবার ভোটাররা তাদের মূল্যায়িত করে নির্বাচিত করবে এমনটাই আশা করেন তারা। লাইজু হেলেন লাকির মতে,এর আগেও দুইবার নির্বাচন করেছি। শেষের বার বিজয়ী হয়েও যে কোন কারনে পরাজয় শিকার করতে হয়েছে। এবার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে সে শতভাগ বিজয়ী হবেন। বিজয়ী হলে সরকারি সকল ধরনের বরাদ্ধের সুষ্ঠু বন্ঠনসহ গরীব, দুঃখী ও মেহনতি মানুষদের পাশে থাকবেন বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য,আগামী ৫ জুন উপজেলা পরিষদের চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে কলাপাড়া উপজেলার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরআগে ২০ মে প্রতীক বরাদ্ধের তারিখ নির্ধারিন করা হয়েছে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments