বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ঈদের পর অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে কাঁচা মরিচের দাম। এক লাফে কাঁচা মরিচের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে গেছে।

শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২০০ টাকায়। যা ঈদের আগে ছিল ৮০ থেকে ১০০ টাকার মধ্যে।

ব্যবসায়ীরা জানান, ঈদের আগে এক পোয়া (২৫০ গ্রাম) কাঁচা মরিচ ২০ টাকায় বিক্রি করেছি। বৃহস্পতিবার ৪০ টাকা পোয়া বিক্রি করেছি। কিন্তু শুক্রবার যে দামে কেনা হয়েছে তাতে ৫০ টাকার নিচে বিক্রি করার সুযোগ নেই।

এদিকে রাজধানীর কয়েকটি কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি শসা বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকায়। লম্বা বেগুন ৮০ টাকা কেজি, গোল বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকায়। টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। করলা প্রতি কেজি ৬০ থেকে ৮০ টাকা, চাল কুমড়া প্রতি পিস ৫০ টাকা, প্রতি পিস লাউ আকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, মিষ্টি কুমড়ার কেজি ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৫০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০ টাকা, কচুর লতি ৮০ টাকা, পেঁপে ৫০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা ও ধুন্দল বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজি দরে। লেবুর হালি ১৫ থেকে ২০ টাকা। শুকনা মরিচের কেজি ৪০০ টাকা। বাজারে আলু বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা কেজি দরে।

প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, দেশি রসুন ৪০ থেকে ৪৫ টাকা ও চায়না রসুন ১৪০ থেকে ১৪৫ টাকা। আদা বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা কেজিতে।

ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি করছেন ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকা, যা ঈদের আগে ছিল ১৪৫ থেকে ১৫০ টাকা। এছাড়াও গরুর মাংসের কেজি ৭০০ টাকা আর খাসির মাংসের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৯০০ টাকায়।

Previous articleনোয়াখালীতে রোহিঙ্গা তরুণী আটক
Next articleপদ্মা সেতুর সুফলে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত জনসমুদ্রে পরিনত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।