বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নতুন শিক্ষাবর্ষে বিনা মূল্যে বিতরণ করা পাঠ্যপুস্তকের ভুলভ্রান্তি চিহ্নিত করা এবং পাঠ্যপুস্তক প্রণয়নে জড়িত ব্যক্তিদের কারও কোনো গাফিলতি আছে কি না, তা দেখার জন্য দুটি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পাঠ্যবই বিতর্কের প্রেক্ষিতে দুটো কমিটি গঠন করা হবে। একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি পরীক্ষা-নিরীক্ষাপূর্বক পাঠ্যবইয়ে প্রয়োজনীয় সংশোধনী অর্ন্তভুক্ত করবে। এই কমিটিতে ধর্মীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদেরও রাখা হবে। যে কেউ বিশেষজ্ঞ কমিটিকে অনলাইনে ম্যাসেজ পাঠাতে পারবে এবং ভুল ধরিয়ে দিতে পারবে। দ্বিতীয় কমিটি কাদের গাফেলতিতে পাঠ্যবইয়ে ভুল রয়ে গেছে তাদের চিহ্নিত করবে। তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। রবিবারের মধ্যে কমিটি সংক্রান্ত তথ্য গণমাধ্যমকে অবহিত করা হবে। এ সময় মাননীয় মন্ত্রী আরো বলেন, যেসব প্রকাশক অতিরিক্ত নিম্নমানের বই শিক্ষার্থীদের সরবরাহ করেছে তাদের চিহ্নিত করে ব্ল্যাকলিস্টে নেয়া হবে এবং পরবর্তীতে তারা আর বই ছাপার কাজ পাবে না। ইসলাম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান কোন ধর্মকে আঘাত করে এমন কিছু পাঠ্যবইয়ে রাখা হবে না বলে জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীসহ শিক্ষা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন ।

Previous articleমহিপুরে পুলিশের অভিযানে হারানো কিশোরী উদ্ধার
Next articleমুলাদীতে কিশোরী শিক্ষার্থীদের সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।