বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪
Homeবিনোদনশিল্পী মনজুরুল ইসলাম খানের একক গজল সন্ধ্যা

শিল্পী মনজুরুল ইসলাম খানের একক গজল সন্ধ্যা

রফিক সুলায়মান: অনেকদিন পর ঢাকার শ্রোতাদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছেন খ্যাতনামা গজল শিল্পী মনজুরুল ইসলাম খান। করোনা উপস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন স্থবির হয়ে পড়া ঢাকার সাংস্কৃতিক অঙ্গন আবার আড়মোড়া ভাঙছে। আর শীতকে কেন্দ্র করে এই পরিস্থিতির আরো উন্নতি পরিলক্ষিত হবে আশা করছি।

আমাদের প্রিয় মনজুরুল ইসলাম খান আমার কাছে একটু বেশীই প্রিয়। তিনি রুচিশীল ধ্রুপদ গানের পতাকাবাহী, আমি এর সামান্য শ্রোতা মাত্র। এছাড়া আমরা দুজনই সমমনা সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক আদর্শের অনুগামী। তাঁর পরিবেশনার ভক্ত অগণন। সেটা দেশে ও বিদেশে বিস্তৃত। জেনারেল এডুকেশনের পাশাপাশি তিনি সঙ্গীতেও তালিম নিয়েছেন যুগপৎভাবে। সঙ্গীতে উচ্চতর ডিগ্রী নিয়েছেন মুম্বাই থেকে। এর বাইরে তালিম নিয়েছেন ঢাকায় নীলুফার ইয়াসমিন এবং ভারতে গজল সম্রাট জগজিৎ সিংজী’র কাছে। এখন আমরা যে মধুর ও পরিশীলিত কণ্ঠের মনজুরুল ইসলামকে পাই তা একদিনে তৈরী হয় নি!

তাঁর গাওয়া অনেক অনেক গান আমি নিয়মিত শুনি। যেমন নজরুলের ‘একেলা গোরী জলকে চলে গঙ্গাতীর’ কিংবা তারাশংকর বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘প্রাণের রাধার কোন ঠিকানা’ তেমনি ‘আজনবী শেহের কে আজনবী রাস্তে’ অথবা বাংলাদেশের উর্দু কবি নওশাদ নূরীর কালাম ‘এয়সি তানহাই পাতা আপনা কাহাঁ।’ এরকম অনেক গানের নামই নেওয়া যেতে পারে। তাঁর কণ্ঠে গালিব, নিদা ফাজলি, কাতিল শিফাই, কাইফি আজমী, পারভীন শাকির, ফয়েজ আহমেদ ফয়েজের কালাম শোনা গভীর আনন্দের।

শিল্পী মনজুরুল ইসলাম খানের গজল সন্ধ্যাটি শুরু হবে ২৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যায়, ধানমণ্ডি ক্লাব প্রধান মিলনায়তনে। আয়োজনে সপ্তসুর। সামগ্রীক ব্যবস্থাপনায় গানবন্ধু গোলাম ফারুক ভাই, খোশরোজ সামাদ, নাহীদা রেজওয়ান এবং রফিক সুলায়মান। গোলাম ফারুক ভাই একজন আপাদমস্তক সঙ্গীতপ্রেমী। ঢাকায় যখন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন প্রায় শূন্যের কোঠায় তখন প্রতিমাসেই একাধিক গানের অনুষ্ঠান উপহার দিয়ে চলেছেন তিনি। একদিন তাঁর এই অবদান মূল্যায়িত হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

রফিক সুলায়মান : লেখক, নজরুল-গবেষক এবং সাংবাদিক

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments