বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাজধানীর হাসপাতালগুলোয় দ্বিগুণ বেড়েছে করোনা রোগী। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আবহাওয়া পরিবর্তনেই শক্তিশালী হয়ে উঠছে কোভিড-১৯। অ্যান্টিবডি তৈরির পরও সংক্রমিত হচ্ছে কি না তা নিয়ে গবেষণার প্রয়োজন বলে মনে করেন তারা। সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন বিকল্প নেই বলে মত তাদের।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়। কোভিড ইউনিটেও মাঝে একেবারেই কমে এসেছিল চাপ। দুই সপ্তাহের ব্যবধানে রোগী বেড়েছে দ্বিগুণ।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের অতিরিক্ত পরিচালক ডা. নাজমুল করিম মানিক বলেন, আগের চেয়ে বেড়েছে। আগে ৩০০-৩৫০ পরীক্ষা করে পজিটিভ আসতো ৩০ জন। এখন আসে ৪৫ জন।

সবশেষ ছয়দিনেই দেশে গড়ে ১ হাজারের বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। ফেব্রুয়ারিতে আড়াই শতাংশের নিচে নামা শনাক্তের হার এখন সাড়ে ৯ শতাংশ। হঠাৎই কেন বাড়লো সংক্রমণ?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গত বছরের মতো এ বছরও একই মৌসুমে শক্তিশালী হয়ে বিস্তার ঘটাচ্ছে করোনা। টিকা নেয়ার পরও সংক্রমণ ঘটছে কি না, তা নিয়েও গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইরোলজিস্ট ও সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, যুক্তরাজ্যের করোনার যে নতুন ধরন শনাক্ত হয়েছিলো; সেটা যাতে না আসে অনেক পদক্ষেপ নেয়ার কথা ছিল। কিন্তু জানুয়ারি মাসে করোনার নতুন ধরনে ছয়জন শনাক্ত হয়েছে। এর মানে এক হাজার জনের বেশি ছড়িয়ে পড়ছে।

এদিকে, দেশে সংক্রমণ আবার বাড়তে শুরু করলেও স্বাস্থ্যবিধি মানার বেলায় একেবারেই উদাসীন মানুষ।

একজন জানান, দুই মিনিটের জন্য বের হয়েছি। সেজন্য মাস্ক নিয়ে আসিনি।

বার বার স্বাস্থ্যবিধি মানার জোর তাগিদ বিশেষজ্ঞদের।

Previous articleদেশে করোনায় আজও ২৬ জনের মৃত্যু
Next articleপ্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি, মিনুসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।