বাংলাদেশ ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য গুজরাটে এ বছর দ্বাদশ শ্রেণির কেন্দ্রীয় বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, পুরো রাজ্যে এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে প্রখর মেধার পরিচয় দিয়ে শীর্ষ ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকার করেছেন সেখানকার তিনজন মুসলিম শিক্ষার্থী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম মুম্বাই উর্দু টাইমস জানায়, দাওহারা ফালাক, শেখ আকসা নামের হিজাব পরিহিতা দুই ছাত্রী রাজ্যের মেধা তালিকার শীর্ষ ১ম ও ২য় স্থান দখল করেছেন। অপরদিকে বোর্ড সেরা ৩য় স্থান অধিকার করেছেন মোহাম্মদ ইসমাঈল ঘাচি নামে এক মুসলিম যুবক।

মুসলিম শিক্ষার্থীদের এই অভাবনীয় সাফল্য ওই সব লোকদের বিব্রত করেছে, যারা বলে, মুসলিম বালক শুধু ‘পাঞ্চার’ (ফুটো টায়ার) মেরামত করতে পারে, পড়ালেখার যোগ্য না। আর মুসলিম বালিকারা হিজাব পরিধান করলে পড়ালেখা করতে পারে না।

অথচ যে দুই ছাত্রী এবার মেধার স্বাক্ষর রেখে বোর্ড সেরা হয়েছেন, তারা উভয়েই হিজাব পরিহিতা। ফলে তাদের ফলাফল হিজাব বিরোধীদের জন্য উৎকৃষ্ট জবাব হয়ে থাকল। সাথে এটাও প্রমাণিত হলো, হিজাব-বোরকা পড়ালেখা ইত্যাদির জন্য কখনোই প্রতিবন্ধক নয়।

সূত্র: মুম্বাই উর্দু টাইমস

Previous articleতামিম-জয়ের পর মুশফিক-লিটনে উজ্জ্বল বাংলাদেশ
Next articleসাপাহারে অবৈধ ১৩টি চায়না দুই দুয়ারী রিং জাল পুড়িয়ে ধ্বংস
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।