বাংলাদেশ ডেস্ক: অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সাম্প্রতিক রিপোর্টে ইউক্রেনের সেনাকে এক হাত নেয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ইউক্রেন সর্বদা যুদ্ধের নীতি মানছে না। জনবসতিপূর্ণ এলাকায় তারা বেসামরিক মানুষকে লড়াইয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাদেরকে ঢাল বানানো হচ্ছে এমন কথা সরাসরি না বললেও অ্যামনেস্টির ইঙ্গিত তেমনই। এর ফলে বেসামরিক মানুষের মৃত্যু হচ্ছে বলে তাদের দাবি।

বৃহস্পতিবার এক রিপোর্টে দেশটির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনে সংস্থাটি। অবশ্য মানবাধিকার এই সংস্থাটির এই রিপোর্টকে রাশিয়ান প্রচারণা এবং বিভ্রান্তিকর বলে আখ্যায়িত করেছে কিয়েভ।

ইউক্রেনের পাল্টা অভিযোগ, মানবাধিকার সংস্থাটি আক্রমণকারী এবং আক্রান্তের তফাত করতে ভুলে গেছে।

অ্যামনেস্টির এই রিপোর্টের পরই কার্যত ক্ষোভে ফেটে পড়েন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। বৃহস্পতিবার রাতে দেয়া ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, মানবাধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক এই সংস্থাটি একটি ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্রকে সাধারণ ক্ষমা’ করার চেষ্টা করছে। মূলত ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’ শব্দটি তিনি প্রায়শই রাশিয়ার জন্য ব্যবহার করেন।

অ্যামনেস্টির রিপোর্টের জবাবে স্পষ্টভাবে উত্তেজিত হয়ে জেলেনস্কি বলেন, ‘এমন কোনো শর্ত নেই, এবং হতেও পারে না, এমনকি অনুমানগতভাবেও, যার অধীনে ইউক্রেনের ওপর রাশিয়ার যেকোনো আক্রমণ ন্যায়সঙ্গত হয়ে যায়।’

Previous articleপাঁচবিবিতে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবা ব্যাবসায়ী আটক
Next article‘শেখ কামাল ছিলেন সচেতন বহুমাত্রিক প্রতিভার সংগঠক’
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।