ঢাকায় করোনা টেস্টে কেলেঙ্কারির জন্য পরীক্ষায় আস্থা কমছে মানুষের: এএফপি

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ঢাকায় সরকার অনুমোদিত কোভিড হাসপাতাল অনিয়মের অভিযোগে বন্ধ করা হচ্ছে। কোভিড টেস্ট রিপোর্ট নিয়েও জালিয়াতির খবর বেরিয়েছে। ফলে জনগণের মধ্যে আস্থার সঙ্কট দেখা দিয়েছে। সরকারি হিসাবে বাংলাদেশে করোনা পরীক্ষা করানো মানুষের সংখ্যা প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। গতকাল বার্তা সংস্থা এএফপির বিশেষ রিপোর্টে এসব কথা বলা হয়েছে।

এ বার্তা সংস্থা জানায়, স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যানুযায়ী জুনে প্রতিদিন করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা করানো হয়েছে প্রায় ১৮ হাজার মানুষের।কিন্তু গত দু’সপ্তাহে এই সংখ্যা ১০ হাজারের সামান্য বেশি।

তবে স্বাস্থ্য বিভাগের মুখপাত্র নাসিমা সুলতানা এই কম রোগীর বিষয়ে বলেছেন, জনগণের মধ্য থেকে করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক চলে গেছে। করোনায় মৃত্যুহার অনেক কম। সরকারিভাবে এই হার শতকরা ১.২৮। মানুষজন ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলেই বাড়িতে অবস্থান করাকেই বেছে নিচ্ছে।

কিন্তু তার সঙ্গে একমত নন রাষ্ট্র পরিচালিত ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলজি, ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড রিসার্সের সাবেক প্রধান মুজাহেরুল হক। তিনি মনে করেন, ভুয়া পরীক্ষার অভিযোগের কারণে জনগণের মধ্যে অনাস্থা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ঢাকার একজন ব্যাংকার মুমিনুর রহমান। তিনি এএফপিকে বলেছেন, তিনি এসব পরীক্ষা মোটেও বিশ্বাস করেন না। কারণ, তার ৪২ বছর বয়সী এক ভাইকে মধ্য জুনে করোনার লক্ষণযুক্ত অসুস্থতায় মারাত্মকভাবে ভুগলেও তাকে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট দেয়া হয়। এর এক সপ্তাহ পরে তার ভাই মারা যান।

Previous articleরিজেন্টে চিকিৎসার নামে খুন হয় কিশোরী, সাহেদকে আসামি করেনি পুলিশ
Next articleভারতে একদিনে ৪০ হাজারেরও বেশি করোনা রোগী শনাক্ত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।