বাংলাদেশ প্রতিবেদক: দ্বিতীয় ধাপে দেশের ৬০টি পৌরসভা নির্বাচনের ভোট নিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, পৌরসভার নির্বাচনে ক্রমাগত সহিংসতা বেড়ে চলেছে। সহিংসতা ও নির্বাচন একসঙ্গে চলতে পারে না।

তিনি বলেন, নির্বাচন প্রক্রিয়ার পরিবর্তন না হলে এ সহিংসতা বন্ধ করা সম্ভব নয়। এ বিষয়ে সকলের ঐকমত্য আবশ্যক। যে কোনো নির্বাচনের চেয়ে মানুষের জীবন অনেক বেশি মূল্যবান।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে সাভার পৌরসভা নির্বাচনে কয়েকটি ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাভার কলেজের কেন্দ্রে এসে মাহবুব তালুকদার এ কথা বলেন।

নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমি সাভার পৌরসভার তিনটি ভোটকেন্দ্রের ১৮টি বুথ পরিদর্শন করি। বেলা ১টা পর্যন্ত ঐ সকল ভোটকেন্দ্রে ৭৩১১ জন ভোটারের মধ্যে ১২৩২ জন ভোট প্রদান করেছেন। ৩টি বুথে আমি ৩ জন বিরোধী দলীয় প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট দেখতে পাই, কিন্তু অন্য কোথাও এজেন্ট ছিলেন না।

মাহবুব তালুকদার বলেন, এছাড়া সাভার পৌর এলাকায় আমি বিরোধীদলীয় প্রার্থীর কোনো পোস্টার দেখতে পাইনি। এমতাবস্থায়, এই নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক বলা যায় না। যে কোনো নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক না হলে তা সিদ্ধ হয় না। একতরফা নির্বাচন কখনো কাম্য নয়।

প্রসঙ্গত, দ্বিতীয় ধাপে দেশের ৬০টি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শেষে চলছে গণনা। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। আজকের নির্বাচনে ৬০টির মধ্যে ২৮টি পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হয়।

ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেলেও বর্জনের ঘটনা বাদ যায়নি। মোংলায় ভোট বর্জন করেছেন বিএনপি’র মেয়রপ্রার্থীসহ ১৫ প্রার্থী। এছাড়া কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর ও রাজশাহীর ভবানীগঞ্জে ঘটেছে ভোট বর্জনের ঘটনা।

Previous articleউইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের ওয়ানডে দল ঘোষণা
Next articleবসুরহাটের আলোচিত কাদের মির্জার জয়
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।