বাংলাদেশ প্রতিবেদক: চার বছর পর আগামী ৪ জুলাই ‘সচিব সভা’ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎই গুরুত্বপূর্ণ এই সভাটি স্থগিত করা হয়েছে। কিন্তু কেনো সম্ভাব্য এই সভাটি স্থগিত করা হলো তা নিয়ে চলছে নানা আলোচনা। আমলারা ‘সরকার নিয়ন্ত্রণ করছে’ জাতীয় সংসদে সম্প্রতি এ ধরণের তর্ক-বিতর্কের পরপরই প্রধানমন্ত্রী সচিব সভাটি স্থগিত করলেন। আর এ কারণে সংশ্লিদের মধ্যে নানা প্রশ্ন জাগছে।

সরকারের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয়ে অনুবিভাগ সচিব সভার কার্যক্রম তদারকি করে। এ প্রসঙ্গে সমন্বয়ে অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব রাহাত আনোয়ার গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ৪ জুলাই সচিব সভা হচ্ছে না। আপাতত এটুকুই। তিনি গণমাধ্যমকে এর বাইরে আর কিছুই জানাতে রাজি নন।

‘লকডাউনের কারণে হয়তো সচিব সভা স্থগিত করা হয়েছে’ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কোনো কোনো সূত্র এমনটি দাবি করতে চাইছে। কিন্তু এ ধরণের দাবির কোনো যুক্তি দেখছে না সংশ্লিষ্ট অনেকেই। এর কারণ, করোনাকালে লকডাউনের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি অনেক সভা করেন। সচিব সভাটিও ভার্চুয়ালি হওয়ার কথা ছিল। সেকারণে করোনা বা লকডাউন এক্ষেত্রে কোনো বাধা নয়। ফলে অভিজ্ঞরা মনে করছেন, সচিব কমিটির সভা স্থগিত করার পেছনে ভিন্ন কোনো কারণ থাকতে পারে।

বেশ কয়েকদিন ধরেই আমলাদের দৌরাত্ব এবং আধিপত্য নিয়ে বিভিন্ন রকম তর্ক-বিতর্ক চলছিল। সর্বশেষ জাতীয় সংসদে সরকারে আমলাদের প্রভাব নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়। এই প্রেক্ষিতেই প্রধানমন্ত্রী সচিব সভা স্থগিত করলেন কিনা তা স্পষ্ট নয়।

প্রসঙ্গত, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের তত্ত্বাবধানে সচিব সভাটি ভার্চুয়ালি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী তা স্থগিত করেছেন। সভা উপলক্ষে সাতটি এজেন্ডাকে কেন্দ্র করে সংশ্লিষ্ট বিভাগের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহের কাজ চলছিল এবং এই সভায় প্রধানমন্ত্রী সচিবদেরকে গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা দিবেন বলে জানানো হয়েছিল। কিন্তু আপাতত সভাটি হচ্ছে না।

Previous articleমগবাজারে বিস্ফোরণ: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১
Next articleডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়েছে প্রায় ১০০ দেশে, উদ্বিগ্ন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।