সদরুল আইন: বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার (৩১ জানুয়ারি) দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এ তথ্য জানান।

নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী জানান, আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার বেলা ২টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি’র উদ্যোগে জনসভা অনুষ্ঠিত হবে।

এজন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশ প্রশাসনকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও দলের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে।

আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারির জনসভা সফল করতে দলের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীকে প্রস্ততি নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত, আগামী ৮ ফ্রেবুয়ারি খালেদা জিয়ার কারাবাসের এক বছর পূর্ণ হবে। ২০১৮ সালের এদিন বিশেষ আদালতের রায়ে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের দুর্নীতি মামলায় তার ৫ বছরের সাজা হয়।

হাইকোর্টে এ সাজা আরও ৫ বছর বৃদ্ধি পায়।

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী অভিযোগ করেন, ‘ঐতিহ্যগতভাবেই জনরায়ের প্রতি আওয়ামী লীগের অবজ্ঞা। আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী দুঃসহ অপশাসনের এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি করে, যাতে তারা সবসময় প্রতিপক্ষের প্রতিশোধ আশঙ্কায় গণতন্ত্রের প্রাতিষ্ঠানিক বিকাশকে বন্ধ করে দেয়।

আসলে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে মানবিকতার কোনও স্থান নেই। ‘রক্তপাতময় রাজনীতি’ই এদের স্বভাবধর্ম। সব যুগেই এরা নির্বাচনে ভোট ডাকাতির সঙ্গে সহিংসতা ও খুন জখমের পদ্ধতি অবলম্বন করে।

দখল, হরণ ও প্রাণঘাতি প্রবণতাই আওয়ামী রাজনীতির অন্তর্নিহিত শক্তি। খোঁড়া অজুহাতের আশ্রয় নিয়ে তারা বিরোধী দলকে কারাগারে পাঠায়।

বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা ও গায়েবি মামলা দিয়ে এরা বিচার ব্যবস্থাকে নড়বড়ে করে ফেলেছে।

Previous articleসময়ের সেরা রসিকতা করলেন সিইসি: রিজভী
Next articleবাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী অনেক বড় হৃদয়ের মানুষ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।