উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থি মনোনয়নে এমপি-জেলা সভাপতি মুখোমুখি

সদরুল আইন: উপজেলা নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সঙ্গে নবনির্বাচিত এমপিদের লড়াই শুরু হয়েছে। যদিও আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উপজেলা চেয়ারম্যান মনোনয়নের ক্ষেত্রে স্থানীয় এমপিরা কোন ভূমিকা রাখতে পারবে না এবং তাদের কোন মতামতও নেয়া হবে না।

আওয়ামী লীগ থেকে পাঠানো নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মিলে প্রতিটি উপজেলায় জনপ্রিয় তিনজন মনোনয়ন প্রত্যাশীর নাম স্থানীয় সরকার মনোনয়ন কমিটিকে দেয়া হবে।

কিন্তু দেখা যাচ্ছে, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই স্থানীয় এমপিরা উপজেলা নির্বাচনের প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে কর্তৃত্ব স্থাপন করতে চাচ্ছেন।

তারা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের উপর প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

একাধিক জেলা আওয়ামী লীগ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা ইতিমধ্যে দলের সিনিয়র নেতাদের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেছেন।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমরা এরকম অভিযোগ পেয়েছি। কিন্তু আমাদের নির্দেশনা সুস্পষ্ট। এমপিরা উপজেলা নির্বাচনে মনোনয়নের ক্ষেত্রে কোন ভূমিকা পালন করতে পারবে না।

তারপরও যদি এর ব্যত্যয় ঘটে তাহলে বিষয়টা আমরা দেখবো এবং এর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।’

কিন্তু ওবায়দুল কাদের যা-ই বলুন না কেন এমপিরা দায়িত্ব গ্রহণ করেই এ ব্যাপারে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছেন। বেশ কিছু জেলা ও উপজেলা থেকে এমন অভিযোগ উঠেছে। হয় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক অথবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদককে বাগে এনে নিজেদের পক্ষে আনার চেষ্টা করছে এমপিরা।

ফলে তারা বসে উপজেলা নির্বাচনের প্রার্থী চূড়ান্তের সময় এমপিদের তালিকাই চূড়ান্ত করা হচ্ছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যে প্রার্থীদের নাম তারা দেবেন তারাই চূড়ান্ত হবে না। আমাদের সারাদেশে জরিপ আছে। জরিপের পরই এটা চূড়ান্ত হবে।

উল্লেখ্য, গতবারও উপজেলা নির্বাচনের সময় এমপিরা উপজেলার প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে হস্তক্ষেপ করেছিলেন। যেসব উপজেলায় এমপিদের শক্তিশালী ভূমিকা ছিল না সে সব উপজেলায় এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির মধ্যে কর্তৃত্বের লড়াই শুরু হয়েছিল।

এবারও উপজেলা নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং স্থানীয় এমপিদের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়ে গেছে।