বাংলাদেশে সংখালঘু কিংবা সংখ্যাগুরু বলতে কিছু নেই: আলী আজম মুকুল

এএসটি সাকিল: শারদীয় দুর্গাপূজা নির্বিঘ্নে উদযাপন উপলক্ষে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল শনিবার সন্ধ্যায় পৌর বাজারের দলীয় কার্যালয়ে বোরহানদ্দিনের সকল মন্দিরের নেতৃবৃন্দের সাথে মত বিনিময় সভা করেন।
এ সময় উপজেলার ২০ টি মন্দিরে তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে প্রতিবছরের ন্যায় নগদ অর্থ বিতরণ করেন।
বোরহানউদ্দিন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অনিল চন্দ্র দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায়,প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি বলেন,কেবলমাত্র আ’ লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বিরাজমান থাকে।কারণ জাতির জনকের কন্যা বিশ্ব মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার অভিধানে সংখ্যালঘূ কিংবা সংখ্যাগুরু বলতে কিছু নেই। আমরা সবাই বাঙ্গালী। এ দেশটা আমাদের সবার। এখানে কেন শ্রেণি ভেদ কিংবা বৈষম্য থাকতে পারে না।আমরা সবাই সবার।সবাই ঐক্যবদ্ব হয়ে আমরা আমাদের দেশটাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব। এমপি আরো বলেন,আমাদের মনে রাখতে হবে ধর্ম যার যার কিন্তু উৎসব সবার।তিনি বলেন,একটি দল ক্ষমতায় আসলেই দেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন নির্যাতনের শিকার হয়।তাদের সম্পদের উপর ওই দলটির নেতা কর্মীদের লোলুপ দৃষ্টি থাকে।এটা চলতে পারে না।
স্বাগত বক্তব্যে সভাপতি অনিল চন্দ্র দে বলেন,বাংলাদেশ আ’লীগ সরকারের আমলে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন তাদের ধর্মীয় যে কোন অনুষ্ঠান যেমন নির্বিঘ্নে পালন করতে পারে তেমনি সুখ শান্তিময় জীবন যাপন করতে পারেন।সুন্দর বিরাজমান এ পরিবেশের জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী সহ এলাকার সংসদ সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করেন। হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, পৌর মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ দে সহ বিভিন্ন মন্দিরের সভাপতি সম্পাদক বৃন্দ।
অনুষ্ঠানে আলী আজম মুকুল এমপি’তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে প্রতি বছরের ন্যায় প্রতিটি মন্দিরে ২৫ হাজার টাকা করে ২০ মন্দিরে ৫ লক্ষ টাকা নগদ বিতরণ করেন।