বাংলাদেশ প্রতিবেদক: জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারের পর নড়েচড়ে বসেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। অধিনায়কত্বের পরিবর্তন থেকে আরো বেশ কিছু খেলোয়াড় পরিবর্তন দেখা যায় সেই সময়ে। তখন বিসিবি বস নাজমুল হোসেন পাপন ঘোষণা দিয়েছিলেন, এশিয়া কাপে দেখা যাবে নতুন এক বাংলাদেশকে।

কিন্তু নতুন বাংলাদেশকে দেখা গেল কোথায়? এশিয়া কাপে আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হেরে সুপার সিক্সে উঠতে না পারাটা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশের ব্যর্থতার পাল্লাকে স্রেফ ভারি করে। এশিয়া কাপের পর আরো একবার নড়েচড়ে বসে বিসিবি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এর দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয় ডোমিংগোকে, দায়িত্ব পান শ্রীধরণ শ্রীরাম। দল থেকে বাদ দেয়া হয় গত বিশ্বকাপের অধিনায়কত্ব করা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকেও।

এত নতুনত্বের পরেও ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের অসহায় আত্মসমর্পণ প্রশ্নবিদ্ধ করেছিল বিসিবির এসব এপ্রোচকে। তবে বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বে নেদারল্যান্ডস ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুটো জয় স্বস্তি দিয়েছে বিসিবিকে। স্বস্তির ছাপ পাওয়া যায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপনের কণ্ঠেও।
পাপন বলেন, ‘আজকের ম্যাচ জেতা উচিৎ ছিল। নাহলে আমি খুব কষ্ট পেতাম। কারণ এটা না জেতার কোনো কারণ নেই।’

‘আমরা জানি আমরা টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে খারাপ, তবুও আমাদের ইম্প্রুভ করার জায়গা খুঁজতে হবে। আজ শেষ ৪ ওভারে রান তেমন আসেনি আবার বোলিং এ শেষ ৩ ওভারে রান বেশি দিয়ে ফেলেছে। এই জায়গাটা ইম্প্রুভ করতে হবে’

আজ পার্ট টাইমার মোসাদ্দেক হোসেন ৪ ওভার করেছেন। পঞ্চম বোলার ইস্যু নিয়ে ম্যাচের পরেও বেশ আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে। উপযুক্ত পঞ্চম বোলার একাদশে না থাকাটা ইস্যু মনে করেন পাপনও।

তিনি বলেন, ‘এটা নিয়ে খালেদ মাহমুদ সুজন অথবা জালাল ইউনুসের সাথে কথা বললে ভালো হবে। তবে আমি মনে করি আমাদের আরো একজন অতিরিক্ত বোলার একাদশে নিতে হবে।’

Previous articleউলিপুরে মাদক ব্যাবসায়ী আব্দুর রহমান ২৮০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার
Next articleশুভ জন্মদিন ভাষা সৈনিক রফিকউদ্দিন আহমদ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।