সাহারুল হক সাচ্চু: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় একটি খামারে বিদেশী জাতের ছাগল পালন করা হচ্ছে। অতি উৎসাহী একজন খামারটি গড়েছেন। কম সময় ও কম খরচে বেশি লাভ এমন লক্ষ্য রেখেই খামারটি করা হয়েছে। উল্লাপাড়া উপজেলা মৈত্র বড়হর গ্রামের সেলিম সরকার এ খামার করেছেন। নিজ জায়গায় আধা পাকা বিশাল একটি ঘরে তিনি ছাগল লালন-পালন করছেন। প্রায় এক বছর আগে খামারটি শুরু করা হয়েছে। এ খামারে ভারতীয় উন্নত দু’টি জাতের ছাগল পালন করা হচ্ছে। জাত দু’টি হলো- হারিয়ানা ও তোতাপারি। বর্তমানে বড় ছোট মিলে ১৮টি ছাগল আছে। এখানে শতাধিক ছাগল পালন করা যাবে বলে জানানো হয়। এ খামারের মালিক জানান, খামার শুরুর প্রথম থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে ভারত থেকে আনা ক’টি ছাগল তিনি কেনেন। প্রতিদিন নির্ধারিত সময়ে তিনবার এদের খাবার দেওয়া হয়। তিনি নিজেই এর পরিচর্যা করেন। ধানের খড় এর প্রধান খাদ্য বলে জানান। এছাড়া অন্যান্য ভূষি জাতীয় খাবারও দেওয়া হয়। তার খামারে সবচেয়ে বেশি দামে ছাগল এক লাখ দশ হাজার টাকায় কিনেছেন। প্রজনন ব্যবস্থা প্রাকৃতিক বলে জানান। চিকিৎসা সেবা তিনি নিজেই দিয়ে থাকেন। তবে প্রয়োজন হলে স্থানীয় প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের চিকিৎসকদের পরামর্শ নেওয়া হয়। এর আগে তিনি টার্কি মুরগীর খামার গড়ে ছিলেন। তিনি আরো জানান, ছাগলের মাংসের অনেক বেশি চাহিদা আছে। এসব উন্নত জাতের ছাগল পালনে একই সময়ে কম খরচে বেশি পরিমান লাভ মেলানো যাবে। উল্লাপাড়া উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোর্শেদ উদ্দীন আহম্মেদ বলেন, ছাগলের খামার লাভবান প্রকল্প। বৈজ্ঞানিক পন্থায় ছাগল পালন করা হলে নিশ্চিত লাভ হবে। তবে ছাগল লালন-পালনে কৃমিনাশক ঔষধ, ভ্যাকসিন, সুষম খাদ্য ও পানি ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। উপজেলা প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তর থেকে এমন খামার গড়ার পিছনে বিভিন্ন সহযোগীতা ও পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।

Previous articleঅপারেশন ছাড়াই এক সঙ্গে ৭ সন্তান জন্ম দিয়েছেন এক নারী
Next articleপহেলা বৈশাখ উপলক্ষে রংপুর বিভাগে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।