বাবুল আকতার: নওগাঁর সাপাহারে প্রভাবশালী মহল কর্তৃক জনসাধারনের চলাচলের রাস্তার পানি নিস্কাষন প্রক্রিয়া বন্ধ করায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি,জনদুর্ভোগ চরমে । এলাকাবাসীর অভিযোগে জানাগেছে উপজেলার শিরন্টি ইউনিয়নের গোপালপুর আদিবাসীপাড়া ত্রিমুহনী মোড়ের পানি নিস্কাষনের জন্য রাস্তার উপর সরকারী ভাবে নির্মিত কালভার্টের মুখে স্থানীয় মানিক হোসেন ও ওয়াজেদ আলীর স্ত্রী ফাতেমা বিবি পরিকল্পিত ভাবে কালবার্টের মুখে মাটি ভরাট করে। এক পর্যায় সেখানে তারা ইটের দেয়াল নির্মান করে পানি প্রবাহ বন্ধ করে দেয়। অপর দিকে সেলিম হোসেন ও দেরাস আলী নামের দুই ব্যবসায়ি প্রতি হিংসা মুলক হয়ে অনুরুপ ভাবে সরকারী রাস্তার জায়গা জবর দখলে করে সেখানে দোকান ঘর নির্মান করে। উল্লেখিত দখলদারদের কারনে ওই মোড়ে বর্তমানে জলাবদ্ধতা প্রকট আকার ধারন করেছে। এলাকার ভুক্তভোগীরা জানান গত কয়েক মাস ধরে এ অবস্থা চলতে থাকায় স্থানীয় লোকজন ও দখলকারীদের মধ্যে দিন দিন উত্তেজনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাস্তার উপর বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ার কারনে চলতি মৌসুমে বোরো ধান পরিবহনে কৃষক জনতা চরম কষ্ট ভোগ করছে। জমে থাকা পানি নিচে নামতে না দেয়ার কারনে ওই মোড়ে বসবাসরত আদিবাসীদের মাটির তৈরী ঘর বাড়িগুলো ভেঙ্গে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহলের প্রতিহিংসা মুলক কর্মকান্ডের কারনে এলাকার সাধারণ মানুষ চরম ভোগান্তির মধ্যে দিনাতি পাত করছে। এলাকাবাসী সৃষ্ট সমস্যা দ্রুত সমাধানের লক্ষে রোববার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, নির্বাহী অফিসারের জরুরী হ¯তক্ষেপ কামনা করে আবেদন করেছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট স্থানীয় ইউপি সদস্য জিল্লুর

রহমানের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান যে বিবাদমান দুপক্ষের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে মোড়ের জমি সরকারী সার্ভেয়ার দ্বারা মাপ করা হবে। অল্পদিনেই সরকারী ভাবে পানি নিস্কাষনের জন্য স্থায়ী ড্রেন নির্মানের প্রচেষ্টা অব্যহত রয়েছে।