সাঁথিয়ায় গরম পানিদিয়ে ভাবীর শরীর ঝলসে দিল দেবর

আব্দুদ দাইন: পাবনার সাঁথিয়ায় ফজর আলী নামের এক পাষন্ড দেবর ভাতের গরম পানি দিয়ে ঝলসে দিয়েছে ভাবী রওশনারার (৩৫) মুখমন্ডলসহ শরীরের অনেকাংশ। রওশনারা উপজেলার পুন্ডরিয়া গ্রামের রফিকুলের স্ত্রী। ভাতের ফেন (গরম পানি) নিক্ষেপকারী পাষন্ড ব্যাক্তি ওই গ্রামের খেজমত আলীর ছেলে ও রফিকুলের চাচাতো ভাই। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাত ৮টার দিকে। রওশনারার স্বামী রফিকুল জানায়, সোমবার রাত ৮টার দিকে তার স্ত্রীী রওশনারা ভাত রান্না করছিল। এ সময় পারিবারিক বিষয়ে ঝগড়া লাগায় আমার চাচাতো ভাই পাষন্ড ফজর আলীী আমার স্ত্রী রওশনারার শরীরে ভাত রান্না করা গরম ফেন দিয়ে ছুড়ে মারে । সাথে সাথেই তার মুখ মন্ডল ঝলসে যায়। এ সময় রওশনারার চিৎকারে বাড়ির অন্যান্যরা এগিয়ে এলে ফজর আলী পালিয়ে যায়। মঙ্গলবার সকালে রওশনারােেক প্রথমে সাঁথিয়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রওশনারার অবস্থা গুরুতর হলে তাকে পাবনা রিফার্ড করেন কর্তব্য চিকিৎসক। রফিকুল অত্যন্ত গরীব মানুষ হওয়ায় স্ত্রীকে পাবনা না নিয়ে বেড়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে রফিকুল বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় অভিযোগ দেন। পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে ফজর আলীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা সাঁথিয়া থানার এস আই আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর পরই আসামীকে আটক করা হয়েছে।