লামায় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জোবেদা বেগম।

মো. নুরুল করিম আরমান: বান্দরবানের লামা উপজেলায় আপন ছোট ভাই কর্তৃক পৈত্রিক সম্পত্তি আত্মসাতসহ প্রাণ নাশের আশঙ্কায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন বড় বোন জোবেদা বেগম (৪০)। শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে লামা প্রেসক্লাবের মিডিয়া কন্ধসঢ়;ফারেন্স রুমে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি। অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভাই এস.এম বদরুল বারীর সন্ত্রাসী ভূমি আগ্রাসীমূলক কর্মকান্ড ও প্রাণ নাশের হুমকির তথ্য তুলে ধরে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সহযোগিতা করেন বড় বোন জোবেদা বেগম। বোন জোবেদা বেগম লিখিত বক্তেব্যে জানায়, তার বাবা মৃত কুতুব উদ্দিনের নামে লামা পৌরসভা এলাকার হাসপাতাল পাড়ায় ৫২ শতক জমি রয়েছে। জমির ওয়ারিশ যথাক্রমে তাদের মা, দু’ভাই ও দু’বোন। কিন্তু তাদের ভাই বদরুল বারী ও তার স্ত্রী রৌশন আরা মিলে পৈত্রিক সম্পত্তি পুরোটাই আত্মসাত করার জন্য পায়তারা শুরু করেন। জোবেদা বেগম জানান, ইতোপূর্বে তিনি সামাজিক সিদ্ধান্তক্রমে তার অংশে বাবার পুরাতন ঘরটিতে অবস্থান করছেন। সম্প্রতি পাকা অবকাঠামো নির্মান কাজ শুরু করলে ভাই বদরুল বারী ও তার স্ত্রী রৌশন আরা সন্ত্রাসী কায়দায় জোবেদা বেগমের কাছে মোটা অংকের টাকা অথবা তিন শতাংশ জমি দাবী করে জোরপূর্বক সাদা কাগজ কার্টিজে স্বাক্ষর নেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে এখন কাজে বাধাঁ দিচ্ছেন। জোবেদা বেগম আরো বলেন, তার ভাই বদরুল বারী একজন নেশাগ্রস্থ উম্মাদ-উচ্ছৃঙ্খল। সে তার বাবার জীবদদশায় থাকাকালীন সময় পুরো সম্পত্তি নিজের নামে এককভাবে লিখে নেওয়ার চাপ প্রয়োগ ও বাবাকে একাধিকবার লাঞ্চিত করলে, বাবা কুতুব উদ্দিন ষ্টোক করেন। খবর পেয়ে অসুস্থ্য বাবাকে আমরা চট্টগ্রাম নিয়ে চিকিৎসা করাই। চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে ভাই বদরুল বারী বাবার কোন খোঁজ রাখেনি, উপরন্ত বাবার সম্পত্তি এককভাবে আত্মসাতের ষড়যন্ত্র শুরু করেন। বর্তমানে বদরুল বারী ও তার স্ত্রীর রৌশন আরার উগ্র আচরণে জোবেদা বেগম অসহায় ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তিনি আশংকা করেন, তার ভাই ও ভাই’র স্ত্রী যে কোন সময় তার উপর হামলা চালাতে পারে।