মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০২৪
Homeসারাবাংলাসোনারগাঁয়ে ঝুঁকিপূর্ন বেইলী ব্রীজে ঝুঁকি নিয়ে যান চলাচল

সোনারগাঁয়ে ঝুঁকিপূর্ন বেইলী ব্রীজে ঝুঁকি নিয়ে যান চলাচল

গিয়াস কামাল: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া-বারদী সড়কের আনন্দবাজার এলাকায় বেইলী ব্রীজ এখন মানুষের মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে ব্রীজের মাঝে কয়েকটি গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে এ ব্রীজ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে জনসাধারণকে। এদিকে এ ব্রীজের বেশ কয়েকটি স্থানে স্টিলের প্লেট ভেঙ্গে পড়ায় যানবাহন চালক ও যাত্রীরা দুর্ঘটনার কবলে পড়ছেন। গত এক বছরে এ ব্রীজ দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। এছাড়াও এ ব্রীজ দিয়ে ভারি কোন যানবাহন চলাচল করতে পারছে না বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। স্থানীয় আনন্দ বাজার এলাকার ব্যাবসায়ীরা তাদের দোকানে মালামাল আনা নেওয়া করতে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। ঝুঁকিপূর্ণ এ ব্রীজটি সংস্কার করা না হলে যে কোন সময় ভেঙ্গে পরে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আশংকা রয়েছে। স্থানীয়রা ব্রীজটি দ্রুত সংস্কার বা পূর্ন নির্মাণের দাবী জানিয়েছেন। এলাকাবাসী জানায়, মোগরাপাড়া থেকে বারদী সড়কের আনন্দবাজার এলাকায় ১৯৮৮ সালে নির্মিত হয় এ বেইলী ব্রীজটি। ২৮ বছর বয়সের এ ব্রীজটি নির্মাণের পর থেকে আর কোন সংস্কার করা হয়নি। এ ব্রীজ দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার লোক যাতায়ত করে থাকেন। ব্রীজটি সংস্কার বা পূর্ন নির্মাণ করা না হওয়ায় প্রতি সপ্তাহেই কোন না কোন দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে পথচারীরা। তাছাড়া এ ব্রীজটি পথচারীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এ ব্রীজের স্থায়ীত্ব হারিয়ে ফেলার কারনে ব্রীজের উপর দিয়ে ভারী কোন যানবাহন চলাচল করতে পারে না। ফলে বারদী ও আনন্দবাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ভোগান্তি এখন চরমে। এদিকে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজের উত্তর পাশে আনন্দবাজার হাট, বারদী বাজার, দামোদরদী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বারদী স্কুল এন্ড কলেজ, শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী আশ্রম, পশ্চিম বঙ্গের সাবেক মূখ্যমন্ত্রী প্রয়াত জ্যোতি বসুর বাড়িসহ বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান রয়েছে। দক্ষিনে হাজী মতিউর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়, বৈদ্যোরবাজার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও উলুকান্দি মাদ্রাসা রয়েছে। এছাড়া সোনারগাঁয়ের উত্তারাঞ্চলের মানুষের উপজেলা ও থানায় চলাচলের জন্য একমাত্র সড়ক এটি। ঝুঁকিপূর্ণ এ ব্রীজটি ভেঙ্গে পরলে এ গুরুত্বপূর্ণ সড়কের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাবে। ব্রীজটি চলাচলের অযোগ্য হওয়ায় বারদী শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারীর আশ্রম ও পশ্চিম বঙ্গের সাবেক মূখ্যমন্ত্রী প্রয়াত জ্যোতি বসুর বাড়িতে বেড়াতে আসা দেশের

বিভিন্ন স্থানের লোকনাথ ভক্ত ও দর্শনার্থীরা ভারি যানবাহন নিয়ে যাতায়াত করতে পাড়ছে না। ভুল করে এ পথে চলে আসলে ভোগান্তির শেষ নেই। আনন্দবাজার হাটের ব্যবসায়ী আবুল কাশেম, মিছির আলী জানান, এ ব্রীজটি পুরানো হয়ে যাওয়ার কারনে আমরা ট্রাকযোগে পন্য সামগ্রী দোকানে আনতে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। ব্রীজের কাছ থেকে কুলি দিয়ে মাথার বোঝা করে বাড়তি খরচ দিয়ে দোকানে আনতে হয়। ব্রীজটি সংস্কার করা হলে আমাদের বাড়তি খরচ দিয়ে পন্য দ্রব্য বা ভারি মালপত্র আনতে হবে না। সরাসরি দোকানে নিয়ে আসা যাবে। বৈদ্যোরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. আব্দুর রউফ জানান, ঝুকিপূর্ন এ বেইলী ব্রীজটি সংস্কার করার জন্য উধর্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। এ ব্রীজটি ভেঙ্গে পরলে স্থানীয়রা ও পথচারীরা চরম ভোগান্তিতে পরবেন। সোনারগাঁ উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী হায়দার খাঁন বলেন, এ ব্রীজটি নিয়ে আমরাও চিন্তিত। এ বেইলী ব্রীজটি নির্মাণ করার জন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছিলাম। কিন্তু সওজ কর্তৃপক্ষ ব্রীজটি নির্মাণ করবেন বলে আমাদের জানিয়েছেন। আমরা পুনঃ নির্মাণের জন্য সওজ কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেবো। সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহিনূর ইসলাম বলেন, এ ঝুঁকিপূর্ণ বেইলী ব্রীজটি পুনঃ নির্মাণের জন্য সংসদ সদস্য সওজের কাছে প্রস্তবনা পাঠিয়েছেন। আশা করি অতি দ্রুত এ ব্রীজের নির্মাণ করা হবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments