উল্লাপাড়ায় গরীব প্রতিবন্ধী আব্দুল মান্নানের দুশ্চিন্তা এখন ছেলেকে নিয়ে

সাহারুল হক সাচ্চু: প্রায় ৪৩ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী আব্দুল মান্নান। গরীব ও অসহায়। সে জন্ম থেকেই প্রতিবন্ধী নয়। তার এখন দুশ্চিন্তা ছেলে নাসির উদ্দিনকে নিয়ে। সাম্প্রতিক সময়ে ছেলের এক পায়ে সমস্যা দেখা দিয়েছে। এ সমস্যা তাকে ভাবাচ্ছে ছেলেও কি তার মতো প্রতিবন্ধী হওয়ার দিকে এগুচ্ছে। সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের মহেশপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের সহায় সম্বল বলতে মাত্র ১৩ শতক আবাদি জমি ও ছোট একটি বসত ভিটেবাড়ী রয়েছে। সে জানায় বিগত ১৯৮৮ সালে ক্লাস সিক্সে পড়া লেখা কালে তার জ্বর হয়। এর চিকিৎসা করালেও সে জ্বরের পর থেকেই প্রতিবন্ধী হন। তার চলাচল হুইল চেয়ারে। সপ্তাহের এক দু’দিন উল্লাপাড়া শহর অন্য এলাকায় ভিক্ষা করেন বলে জানান। এ ভিক্ষাতেই তার সংসার চলে। তার দু’সন্তানের বড় জন নাসির উদ্দিন স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪র্থ শ্রেণীতে পড়া লেখা করছে। অপর মেয়ে সন্তান একই বিদ্যালয়ে ক্লাস থ্রীতে পড়ছে। আজ শুক্রবার দুপুর পর শহরের পুরাতন বাস্ধসঢ়;ষ্ট্যান্ড এলাকায় স্ত্রী ও ছেলে নাসির উদ্দিনকে থাকতে দেখা যায়। এ সময় কথা হয় আব্দুল মান্নানের সাথে। সে জানায় ছেলেকে আজ চিকিৎসকের কাছে এনেছিলেন। তার ছেলের ডান পায়ে সমস্যা দেখা দিয়েছে। পুরোপুরি পা মাটিতে ফেলে স্বাভাবিকভাবে হাটা চলা করতে পারে না। এর আগেও একাধিকবার বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসক দেখিয়ে ঔষধ পত্র খাওয়ালেও কোন ফল বলতে ছেলে সুস্থ্য হচ্ছে না। তিনি বেশ অসহায়ভাবেই জানান, তার এখন বড় দুশ্চিন্তা তার মতোই কি স্বাভাবিক অবস্থা থেকে ছেলে নাসির উদ্দিন প্রতিবন্ধী হবে। তিনি অর্থের সমস্যা জানিয়ে বড় কোন চিকিৎসকের কাছে ছেলের চিকিৎসা বিষয়ে সাহায্য সহযোগীতা কামনা করছেন।

Previous articleবেনাপোলে ভারতগামী যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড়
Next articleসুন্দরগঞ্জে অধ্যক্ষসহ ২ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বরখাস্তকৃত প্রভাষকের মামলা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।