ত্রাণের চাল চুরি, নড়াইলের কালিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ত্রাণের চাল চুরির অভিযোগে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পেড়লী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. জারজিদ মোল্লাকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আজ শুক্রবার দুপুরে ইউনিয়নের খড়ড়িয়া গ্রাম থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

নড়াইলের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ জসিম উদ্দীন তাঁকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কালিয়া উপজেলা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ইউপি চেয়ারম্যান মো. জারজিদ মোল্লার ১৯০ জন অসহায় কার্ডধারী নারীকে বিনা মূল্যে কার্ডপ্রতি প্রতি মাসে ৩০ কেজি করে চাল দেওয়ার কথা। উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা গত ৬ এপ্রিল চেয়ারম্যানের অনুকূলে ৫ হাজার ৭০০ কেজি চালের ডিও প্রদান করেন। ইউপি চেয়ারম্যান গত ১৪ এপ্রিল সেই চাল উপজেলা খাদ্যগুদাম থেকে উত্তোলন করেন। গত ১৬ এপ্রিল কার্ডধারী ১০৫ জন নারীর মধ্যে চাল বিতরণ করা হয়। অবশিষ্ট ৮৫টি কার্ডের ২ হাজার ৫৫০ কেজি (৮৫ বস্তা) চাল গুদামে রেখে তালার চাবি চেয়ারম্যানের হাতে দেওয়া হয়। গত ১৮ এপ্রিল ওই চাল বিতরণের জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের কাছ থেকে গুদামের চাবি নিয়ে দেখা যায়, সেখানে কোনো চাল নেই। এ ঘটনায় উপজেলা মহিলাবিষয়ক কার্যালয়ের সুপারভাইজার মো. মতিয়ার রহমান বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেন। কালিয়া থানা মামলাটি দুদক যশোরে পাঠায়।

কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাজমুল হুদা বলেন, এর আগে গত ২৩ এপ্রিল স্থানীয় সরকার বিভাগ ইউনিয়ন পরিষদ-১ শাখার উপসচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহম্মেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ইউপি চেয়ারম্যান জারজিদ মোল্লাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। প্রজ্ঞাপনে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯–এর ৩৪ (৪) (ঘ) ধারা অনুযায়ী তাঁকে চূড়ান্তভাবে কেন অপসারণ করা হবে না, এই মর্মে তার জবাবপত্র প্রাপ্তির ১০ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে পাঠাতে বলা হয়। তিনি বলেন, চেয়ারম্যান জেলা প্রশাসক বরাবর জবাব দাখিল করেছেন কি না জানা নেই।