উখিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতির নির্দেশে ফটোসেশন ছাড়া কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে এক ঝাঁক কর্মী

কায়সার হামিদ মানিক: কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসেন মিথুনের নির্দেশে উপজেলার ৫ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ফটোসেশন ছাড়া অসহায় কৃষকদের ধান কেটে দিচ্ছে এক ঝাঁক ছাত্রলীগের কর্মী। লকডাউন,শ্রমিক সংকটের কারণে কৃষকদের ধান মাঠে পেকে চৌচির। কৃষকরা ধান ঘরে তুলতে পারছেনা তাই কৃষকদের পাশে দাঁড়ালেন ছাত্রলীগ।

সরজমিন পরিদর্শন করে এমনটি দেখা গেছে। ইতি মধ্যে উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড,৩ নং ওয়ার্ড,৫ নং ওয়ার্ড,এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহীম,রাজাপালং ইউনিয়নে সাবেক সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর, উপজেলা ছাত্রলীগের গণশিক্কামুলক সম্পাদক সাইফুলে নেতৃত্বে ৬ নং ওয়ার্ডে কৃষকদের ধান কেটে দেওয়া হয়েছে।বর্তমানে আরো ৪টি ওয়ার্ডে ধান কাটছে ছাত্রলীগের কর্মীরা।

হলদিয়াপালং ইউনিয়নে ইলিয়াজের নেতৃত্বে সব ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে ধান কেটে দিচ্ছে।রত্নাপালংয়ের ধান কাটা হচ্ছে সাবেক সাধারণ সম্পাদক তানবীরা নেতৃত্বে,জালিপালংয়ে সব ওয়ার্ডে কাটা হচ্ছে সাবেক সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিনে নেতৃত্বে,এই ছাড়া পালংখালীতে ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ধান কেটে দিচ্ছে অসহায় কৃষকের ধান। রাজাপালং ইউনিয়নের সভাপতি আলমগীর ফরিদ নিঝুম, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসনের নেত্বতে সদরে ধান কাটছে।কলেজ সভাপতি টিপুর নেত্বতে বিভিন্ন এলাকায় ধান কাটা হচ্ছে।

নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক কয়েকজন কৃষক জানান,আমাদের মতো কৃষকের ধান কাটার নামে কিছু নেতাকর্মী ফটোসেশন করে ছবি তোলে ২/৩ জন এতে করে ধান নষ্ট করছে বেশী।তাই নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ ফটোসেশন না করে আমাদের মতো অসহায় কৃষকদের ধান কেটে দিয়ে হোন প্রকৃত কৃষক প্রমী।

ফটোসেশন ছাড়া কৃষকের ধান কেটে দেওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে,উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসাইন মিথুন বলেন,ভাই ফটোসেশনের নামে কৃষকের ধান নষ্ট করা আমাদের ছাত্রলীগের কাজ নই,আমরা চাই উখিয়ায় লকডাউনে কারণে ধান কাটার শ্রমিক না পাওয়া ও টাকার অভাবে প্রকৃত অসহায় কৃষকের ধান যেন মাঠে নষ্ট না হয়ে যায় সেকারণে আমরা উপজেলা ছাত্রলীগ সবসময় কৃষকদের পাশে আছি।সে আরো বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা সরকারের শুনাম ধরে রাখতে আমরা সবসময় মাঠে ময়দানে কাজ করে যাচ্ছি।