কলাপাড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার উপর হামলা, আটক ১০

এস কে রঞ্জন: পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের পশরবুনিয়া গ্রামে ৪ মে সোমবার সকালে বালুমহলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করতে গিয়ে শ্রমিকদের হামলার শিকার হয়েছেন কলাপাড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক সহ অন্তন ১০ জন। আহতদের মধ্যে কলাপাড়া থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক মো.জামান হোসেন, পুলিশ কনেষ্টেবল হায়দার আলী, উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার ড্রাইভার আফজাল হোসেন ,স্পীডবোড চালক সাগর, তহশিলদার আবদুল জব্বার ও রফিকুল ইসলাম কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে ভর্তি করা হয়েছে । এ ঘটনায় ভ্রাম্যমান আদালত আট জনকে তিন মাস করে কারাদন্ড দিয়েছে। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন জহিরুল ইসলাম, হাবিব, বশির আহম্মেদ. জহিরুল ইসলাম, মাসুদ রানা, মিরাজ, ওমর ফারুক ও হিরন হাওলাদার । এছাড়া হামলার নেতৃত্বদানকারী লিটন গাজী ও রানার বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় নিয়মিত মামলা করা হয়েছে।

কলাপাড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক জানান, বালুমহল এলাকার একই স্থানে আটটি বাল্কহেড রেখে সরকারী বালুমহল থেকে বালু কেটে নিচ্ছিল। বাল্কহেড গুলোতে অন্ততঃ অর্ধশতাধিক শ্রমিক ছিল । বাল্কহেডের মালিক কে জানতে চাইলে শ্রমিকরা পাঁচটি বাল্কহেড’র মালিক কলাপাড়া উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের লিটন গাজী বলে জানায়। তাকে শ্রমিকরা খবর দিলে সে সহ অর্ধশত শ্রমিকরা ভ্রাম্যমান আদালতে আটককৃত আট জন শ্রমিকে ছিনিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনাকারী টিমের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।