বাউফলে তাপস হত্যা: মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

অতুল পাল: বাউফল(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:বাউফলে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সদস্য ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপণ পরিষদের কালাইয়া ইউনিয়নের প্রচার সম্পাদক যুবলীগ নেতা তাপস চন্দ্র দাস হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদ। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে বাউফল থানার সামনে ডাকবাংলোর মোরেওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সহসভাপতি দাশপাড়া রাধা মাধব মন্দিরের সভাপতি খোকন চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে আয়োজিত মানববন্ধনে তাপস হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দবি তুলে বক্তব্য রাখেন, বাউফল উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সহ- সভাপতি ও উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক অতুল চন্দ্র পাল, বাউফল উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সিনিয়র সহ- সভাপতি কালিশুরী ড্রিগ্রি কলেজের প্রভাষক সজল কুমার হালদার, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাংবাদিক জিতেন্দ্র নাথ রায়, বাউফল উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য কর্পূরকাঠী ইসলামিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তুষার কান্তি দাস, নিহত তাপস দাসের মা রিনা রানী দাস ও বড় ভাই পঙ্কজ দাস। এসময় বক্তারা বলেন, থানা পুলিশের সামনে বেলা দুইটার দিকে তাপস দাসকে ছুরিকাঘাত করে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমরা অতিদ্রুত তাপস হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসি চাই। এসময় নিহত তাপসের মা রিনা রানী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাঁর ছেলে হত্যার বিচার দবি করে বলেন, “আমার ছেলেকে পুলিশের সামনে হত্যা করা হয়েছে। আমি আপনার (প্রধানমন্ত্রী) কাছে আমার

ছেলে হত্যার বিচার চাই। আমি খুনিদের বিচার দেখে মরতে চাই”। প্রায় দুই সহাস্রাধিক হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের অংশ গ্রহণে ঘণ্টাব্যাপি চলা মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন বাউফল উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সহ-সভাপতি ও পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক অতুল চন্দ্র পাল।

উল্লেখ্য, গত ২৪ মে দুপুরে বাউফল থানা সংলগ্ন ডাকবাংলোর সামনে তোরণ নির্মাণকে কেন্দ্র করে পৌর মেয়র গ্রুপের হামলায় তাপস দাসসহ প্রায় ১৫জন নেতাকর্মী আহত হয়। গুরতর আহত তাপস দাস ওই দিনই সন্ধে সারে সাতটার দিকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। এঘটনায় সেমাবার রাতে নিহত তাপস দাসের বড় ভাই পঙ্কজ দাস বাদী হয়ে বাউফল পৌরসভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলকে প্রধান আসামি করে বাউফল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। স্মারকলিপি গ্রহণের সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন বলেন, তাপস হত্যার বিষয়টি প্রশাসন গুরুত্বের সাথে দেখছেন। জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Previous articleঈশ্বরদীর ৪৭৯ মসজিদে সরকারি প্রণোদনা
Next articleঅর্থের পরিমান দিয়ে নয় শেখ হাসিনার হৃদয়ের অনুভুতি হিসেবে গ্রহণ করুন : টুকু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।