বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাআ'লীগ নেতার সহযোগিতায় কৃষক পরিবারের রাস্তা বন্ধ করে কবরস্থান! অতঃপর

আ’লীগ নেতার সহযোগিতায় কৃষক পরিবারের রাস্তা বন্ধ করে কবরস্থান! অতঃপর

তাবারক হোসেন আজাদ: গত তিন বছর সুপারি বাগানের ভিতরে পানি দিয়ে চলাচল করছে এক নিরীহ কৃষকের পরিবার।বাড়ীর চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে আ’লীগ নেতার সহযোগিতায় এক প্রবাসীর স্ত্রী তাদের কবরস্থান দেয়ায় এ প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়। আবার রাতের আধারে দুর্বৃত্তরা ওই কবরস্থানের দেয়ালও ভেঙ্গে দিয়েছে। অতঃপর থানায় উল্টো অভিযোগ দিয়ে শালিশ বৈঠকে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকের দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সঠিক বিচার না পাওয়া ও চাপসৃষ্টি করা জরিমানার টাকা পরিশোধে কৃষক পরিবার আতংকিত ও হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (১৭ জুন) লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার চরআবাবিল ইউপির গাইয়ারচর গ্রামে।
ক্ষতিগ্রস্থ্য কৃষক বাবুল সৈয়াল জানান, বড় ভাই হান্নানের কাছ থেকে তিন বছর আগে দুই শতাংশ জমি ক্রয় করে সরু রাস্তা দিয়ে চলাচল করছিলাম। কিন্তু একই এলাকার প্রবাসীর স্ত্রী-ছকিনা আমার মা ও আরেক ভাইয়ের কাছ থেকে জমি কিনে চলাচলের রাস্তাটি বন্ধ করে তার চারপাশে ইটের দেয়াল দিয়ে কবরস্থান বানায়। এতে আমার পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়ি। এতদিন সমাজের কাছে বিচার না পেয়ে শনিবার ফাঁড়ি থানায় অভিযোগ দিয়ে বৈঠকে ছকিনা বেগম উপস্থিত হয়নি। তাই রাস্তার জন্য কবরস্থানের ওই অংশের দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। এখন নতুন এসআই থানায় যোগদান করেই আমার কথা না শুনেই প্রতিপক্ষের কথায় দেড় লাখ জরিমানা করা হয়। যথাসময়ে না দিতে পারলে জেলে ঢুকিয়ে দেয়ারও হুমকি দেয়া হয়। এতো টাকা আমি কোথায় পাবো। -তাছাড়া ছকিনার বাড়ী বিরোধকৃত জায়গা থেকে ৪’শ মিটার দুরে অবস্থিত। প্রায় সময় ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক তাজল ইসলামকে নিয়ে তুচ্ছ ঘটনায় ঝামেলায় লিপ্ত হয়।

গ্রামবাসী জানান, কৃষক বাবুলের এই ঘটনা স্থানীয় প্রশাসন, থানা-পুলিশ সবাই জানলেও কোনো সুরাহা হচ্ছে না। গত তিন বছর অবরুদ্ধ করে রেখেছে প্রভাবশালী সকিনা বেগমসহ ওই আ’লীগ নেতা ও তার ক্যাডারবাহিনী। তবে ছকিনা বেগম ও আ’লীগ নেতা সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

বুধবার সরেজমিনে দেখা গেছে, কৃষক বাবুল সৈয়ালের বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে নামেই কবরস্থান নির্মান করা হয়। পূর্ব পাশে সুপারি গাছের ভিতরে পানি দিয়ে একটি প্রবেশপথ দিয়ে সড়কে উঠতে হয়। মিমাংশার জন্য বাবুল প্রশাসনের কাছে আবেদন করার পরও তা হয়নি। এই পথ ব্যবহার করতে গেলে সকিনা বেগম ওই আ’লীগ নেতাসহ লোকজন তাঁদের বাধা দেন, গালিগালাজ করেন। এ জন্য তাঁরা সুপারি বাগানের ভিতর পানি দিয়ে খুব কষ্টে-চলাচল করছেন।

প্রভাবশালী সকিনা বেগম দাবি করেন, বাবুল সৈয়ালের মা ও তার এক ভাই’র কাছ থেকে জমি কিনে কবরস্থান করেছি। কিন্তু বাবুল সৈয়াল তার পরিবার নিয়ে আমার কবরস্থান ভেঙ্গে দিয়েছে। আমি থানায় বিচার চাইলে শালিশদাররা তার জন্য রাস্তা ছেড়ে দেয়া,রেজিষ্ট্রি করে দিবে ও ভাংচুরের জন্য মোট দেড় লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। বাবুল সৈয়ালও সবার সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে এখন উল্টাপাল্টা কথা বলছেন।

ইউপি সদস্য জাফর হোসেন বলেন, প্রায় তিন বছর আগে একই এলাকার কৃষক বাবুল সৈয়াল ও প্রবাসীর স্ত্রী সকিনা বেগমের সাথে জমি ও রাস্তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। সকিনা বাবুলের মা ও ভাই’র কাছ থেকে জমি কিনে রাস্তা বন্ধ করে কবরস্থান করলে ঝামেলা আরো বাড়ে । এঘটনায় সকিনা ফাঁড়ি থানায় অভিযোগ দিলে উভয় পক্ষের লোকদের নিয়ে বৈঠক হয়। সকলের সিদ্ধান্তে বাবুলকে জমি রেজিষ্ট্রার ও রাস্তা ছেড়ে দেয়ার জন্য এক লাখ দিবে এবং সকিনার কবরস্থান ভাংচুরের দায়ে বাবুলের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বাবুলও এ সিদ্ধান্ত মেনেছে।

রায়পুর হায়দরগন্জ ফাঁড়ি পুলিশের পরিদর্শক মোঃ জাহাঙ্গির বলেন, জমি নিয়ে বিরোধে সকিনা বেগম নামে এক নারী ৪ জনকে অভিযুক্ত করে রায়পুর থানায লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। তা ওসি সাহেব আমাকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। এবং তা উভয় পক্ষের উপস্থিতে মিমাংশা হয়েছে। বাবুল সৈয়াল তা মেনেও নিয়েছেন। তারপরএ কোন সমস্যা থাকলে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments