তাটারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে কৃষক বন্ধু ও সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতা মোঃ আজমসহ কয়েকজন কৃষককে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে মোঃ রিদয় নামে বামনী ইউপির এক কিশোর গ্যাং লিডারের বিরুদ্ধে ।

ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (০৩ জানুয়ারী) উপজেলার বামনী ইউপির পূর্ব কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে।

‘দৈনিক আমাদের লক্ষ্মীপুর’র ষ্টাফ রিপোটার-সাংবাদিক আজম জানান, প্রান্তিক কৃষকদেরকে কৃষি কাজে উদ্ভুদ্ধ করার লক্ষ্যে নিজের উদ্যোগে পিকনিকের আয়োজন করেন। এসময় কৃষকদের অংশগ্রহনে একটি কাবাডি খেলার সময়ে হঠাৎ স্থানীয় কিশোর গ্যাং লিডার ও রায়পুর উপজেলার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রাহেলা বেগমের ছেলে হৃদয়ের নেতৃত্বে বেনী আমীন (২২) সহ ৫/৬ জন খেলোয়ারদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি করে। এতে আজমসহ স্থানীয় কৃষক, ইউপি সদস্য নজির আহাম্মদ বাবুল ও ইউনিয়নের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তাসহ অন্যান্য গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ তাদেরকে বাধাগ্রস্থ করলে তারা উত্তেজিত হয়ে সাংবাদিক আজমকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মারধর করতে তেড়ে আসে। টেবিল ও চেয়ার ভাংচুরের চেষ্টা চালায়। এসময় খেলা উপভোগকারী মাসুম নামের জনৈক ব্যাক্তির মোবাইল ভাংচুরের চেষ্টা চালায় এবং কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যদের হাতে মারধরের শিকার হতে হয়।

তিনি আরো জানান, কিশোর গ্যাংয়ের লিডার হৃদয়ের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকার লোকজন। চুরি ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে থানায় লিখিত অভিযোগও রয়েছে।, কিন্ত অজ্ঞাত কারণে পুলিশ প্রশাসন রিদয়কে আটক করছে না বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামবাসী।

সাংবাদিক আজমকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক আজম রায়পুর উপজেলার সর্বত্র কৃষকদেরকে কৃষি কাজে উদ্ভুদ্ধ করার লক্ষ্যে স্বেচ্ছায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সভা- সমাবেশ করে আসছেন। এরইমধ্যে তিনি রায়পুরের সর্বত্র কৃষক বন্ধু এবং রায়পুরের শাইখ সিরাজ নামে খ্যাতি লাভ করেছেন।

এঘটনায় বক্তব্য জানতে অভিযুক্ত মোঃ রিদয়ের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করেও সম্ভব হয়নি।