শহিদুল ইসলাম: যশোরের ঝিকরগাছার পল্লীতে ইয়াকুব আলী (৩৫) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৯ বছর বয়সী শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কুমরী হাফিজিয়া মাদ্রাসায়। এঘটনায় মাদ্ররাসা পরিচালনা পর্ষদ ও এলাকাবাসী ওই লম্পট শিক্ষককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে।

জানাগেছে, ঝিকরগাছা উপজেলার কুমরী হাফিজিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষক ও শার্শা উপজেলার গোগা গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে ইয়াকুব আলী
গত ২ জানুয়ারি দুপুরে মাদ্রাসার এক শিশু ছাত্রকে নিজের থাকার ঘরে ডেকে নেয়। পরে ৯ বছর বয়সী ওই শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকার করে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী বিষয়টি মঙ্গলবার তার পরিবারকে জানায়। এসময় শিশুটির অভিভাবক মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদকে অবহিত করলে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদ ও এলাকাবাসী লম্পট শিক্ষককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে।

এ ব্যপারে কুমরী হাফিজিয়া মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সাধারন সম্পাক আসাদুল ইসলাম বলেন এই ঘটনা সত্য। তবে আপনারা এই বিষয়টি নিউজ করবেন না। নিউজ হলে আমাদের মাদ্রাসার দুর্নাম হবে। এবং মাদ্রাসার অনুদান হয়তো বন্ধ হয়ে যেতে পারে।এবিষয়ে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রিপন বালা বলেন, অপরাধী শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।