বাংলাদেশ প্রতিবেদক: গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি মিতুল হোসেন (২৩) আদালতে আত্মসমর্পণ করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গোপালগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. শরিফুর রহমানের আদালতে মিতুল আত্মসমর্পণ করলে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামি করে টুঙ্গিপাড়া থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- টুঙ্গিপাড়া উপজেলার পাটগাতী ইউনিয়নের গওহরডাঙ্গা গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মিতুল হোসেন (২৩), টুঙ্গিপাড়া গ্রামের আনোয়ার উদ্দিন খানের ছেলে রসুল খান (২৫), উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি শেখ শুকুর আহম্মেদের ছেলে রাজিব শেখ (২২)।

জানা গেছে, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে বিকেল সাড়ে ৪টায় কোচিং শেষ করে বাসার যাওয়ার সময় রাস্তায় থেকে তুলে নিয়ে নির্জন স্থানে গণধর্ষণ করে তিন বখাটে। ‍ওইদিন রাতে অচেতন অবস্থায় ওই ছাত্রীকে তার বাড়ির সামনে ফেলে পালিয়ে যায় তারা।

পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে আশঙ্কজনক অবস্থায় গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেও শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ১৫ ফেব্রুয়ারি তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

Previous articleকারাগারে মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
Next articleজুসের সাথে ওষুধ খাইয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, কারাগারে পুলিশ সদস্য
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।