আতিউর রাব্বী তিয়াস: আজ বুধবার সকাল সাড়ে আটটা। খাবারের হোটেল, চায়ের দোকান, কাঁচা বাজারের হাটসহ বিভিন্ন এলাকার মোড়ে লোকজনের উপস্থিতি যেন চোখে পড়ার মতো। আবার অনেকের মুখেও ছিল না মাস্ক। বলতে গেলে লকডাউনের পূর্বের চিত্র। অপর দিকে বাস চলাচল ও দোকানপাট বন্ধ। কিন্তু ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা, ব্যাটারী চালিত ভ্যান চালকেরা লোকজনকে ঠিক আগের মতো করেই গাদাগাদি করে এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় নিয়ে যাচ্ছেন। বাজারের বেশ কিছু দোকান মালিকেরা তাদের দোকানের একটি স্টার্টার খুলে রীতিমতো দোকান দারিও করছেন। করোনার দ্বিতীয় ডেউ থামাতে সরকারের দেওয়া লকডাউনে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার চিত্র ছিল এটি। তবে লকডাউনের প্রথম দিনে প্রশাসনের তৎপরতাও ছিল দিনভর। কোথাও মাস্ক না পড়ার জন্য অর্থদন্ড আবার কোথাও পথচারীদের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণও করেছে উপজেলা প্রশাসন। ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা চালক লিটন হোসেন বলেন, লকডাউনের আগেই তেমন একটা ভাড়া হতো না। লকডাউনের মধ্যে লোকই খুজে পাওয়া যাচ্ছে না। আর গাড়ি না চাললে সংসার চলবে কিভাবে? আলমগীর হোসেন নাম পরিচয় দিয়ে জয়পুরহাট গামী এক যাত্রী বলেন, ব্যবসায়ী কাজে প্রায় সময় আমাকে জয়পুরহাট যেতে হয়। সরকার ঘোষণা দেওয়া পর থেকে ট্রেন বাস সব বন্ধ। তাই বাধ্য হয়ে অধিকা ভাড়া দিয়ে ভ্যানে উঠে জয়পুরহাট যাচ্ছি। তবে করোনার বিস্তার রোধে সামান্য কষ্টটুকু আমি মেনে নিয়েছি। আক্কেলপুর-জয়পুরহাট গামী বাসের সহকারী (হেলপার) শাকিল হোসেন বলেন, গত সোমবার থেকে লকডাউনের কারনে বাস চলাচল বন্ধ। বাস না চললে মালিক তো আর আমাকে বসে থেকে বেতন

দিবে না। তাই সরকারের কাছে অনুরোধ লকডাউনের সময় আমাদের মতো শ্রমিকদের সহযোগীতা করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকার্তা (ইউএনও) এস এম হাবিবুল হাসান বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিত বিনামুল্যে মাস্ক বিতরন কার্যক্রম অব্যাহত আছে। সরকারি নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।

Previous articleউৎসব মুখর পরিবেশে রংপুরে কোভিড ১৯ ভ্যাক্সিনের দ্বিতীয় ডোজ প্রদান শুরু
Next articleসাপাহারে শুরু হয়েছে করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।