বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ভৈরবে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে দুই যুবক নিহত হয়েছেন। উপজেলার খলাপাড়া ও লুন্দিয়া গ্রামে শনিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষের পর উভয় পক্ষের প্রায় অর্ধশত বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট হয়েছে।

নিহতরা হলেন, লুন্দিয়া গ্রামের শেখ খালেকের ছেলে শেখ পাভেল (২৫) ও খলাপাড়া গ্রামের মোতালিব মিয়ার ছেলে শেখ মকবুল (৩৫)। দুই গ্রামের শিকদার বাড়ি ও শেখ গোষ্ঠির মধ্য এই সংঘর্ষ হয়েছে।

গুরুতর আহত ৫ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতদের লাশ ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুলিশের হেফাজতে আছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুই গ্রামের দুই গোষ্ঠির আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সকাল ৯ টায় খলাপাড়া গ্রামে শিকদার বাড়ি ও শেখ বাড়ির মধ্য সংঘর্ষ শুরু হয়। তারপর দুপুর ১২টায় পুনরায় লুন্দিয়া গ্রামে পাগলা বাড়ি ও মেনার বাড়ির মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে।

এসময় উভয়পক্ষের সংঘর্ষে দুজন নিহত ও কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়। নিহতরা একই বংশের বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আহত কালা মিয়া জানান, গ্রামে দুই পক্ষের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই ঘটনাটি ঘটে। দীর্ঘদিন যাবত দুটি পক্ষ গ্রামের নানা কাজে আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা করছিল।

‘শনিবার সকালে ধান মাড়াইকে কেন্দ্র করে প্রথমে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। তারপর দ্বিতীয় দফায় দুপুর ১২টায় আবারও দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে দুজন নিহত হন।’

ভৈরব থানার পুলিশ পরিদর্শক ( তদন্ত) কাজী মাহফুজ জানান, দুই গ্রামের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়েছে। সংঘর্ষের সময় দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে তারা দুজন মারা গেছে।

Previous articleপ্রেমিকার আপত্তিকর ছবি ইন্টারনেটে, যুবক গ্রেফতার
Next articleকরোনায় দেশে আজও ১০১ জনের মৃত্যু
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।