বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় লুকিয়ে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গেলে রাশেদ ইসলাম (১৬) নামে এক প্রেমিককে আটক করা হয়েছে।

এ ঘটনায় আত্মসম্মান ও ভয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে আরমিন আক্তার (১৫) নামের ওই কিশোরী।

নিহত আরমিন বোদা উপজেলার সাকোয়া মিয়াজীপাড়া গ্রামের আব্বাস আলীর মেয়ে। সাকোয়া জমিলাতুন নেছা ফাজিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। আটক হওয়া রাশেদ সাকোয়া শিংপাড়া এলাকার সফিকুলের ছেলে ও সাকোয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্র।

গত সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাতে বোদা উপজেলার সাকোয়া ইউনিয়নের মিয়াজীপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে রাশেদ ও আরমিনের মধ্যে প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিল। এক সময় সর্ম্পকের বিষয়টি উভয় পরিবার জানতে পারলে মেনে নিচ্ছিল না উভয় পরিবার। এদিকে এ ঘটনায় একাধিকবার আপস মিমাংসা হয় উভয় পরিবারের মাঝে।

এরইমধ্যে গতকাল সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাতে মেয়ের বাড়ির সবার অগোচরে আরমিনের সঙ্গে দেখা করতে তাদের বাড়িতে যায়। এ সময় বাড়ির লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে ছেলেকে আটক করে। ছেলেকে আটক করার কথা শুনে আরমিন আত্মসম্মান ও ভয়ে পাশের ঘরে গিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

ঘটনাটি টের পেলে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে উদ্ধার করে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আরমিনকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ রাতেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠান।

বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সাঈদ চৌধুরী সময় নিউজকে জানান, এ ঘটনায় আটক রাশেদ ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছে। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Previous articleকরোনা আক্রান্ত নায়ক আলমগীর হাসপাতালে
Next articleফরিদপুরে ২৭৩ সিমকার্ডসহ ৫ বিকাশ প্রতারক আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।