অতুল পাল: পটুয়াখালীর বাউফলে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সক্রিয় এক সদস্য এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে মিথ্যা,বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রনোদিত সংবাদ সম্মেলন করার প্রতিবাদে সংগঠন দুটির উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে। আজ সোমবার বেলা ১১ টায় বাউফল থানা সংলগ্ন ডাকবাংলো মোরে ওই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়। বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ বাউফল উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক অধীর রঞ্জন দাসের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে প্রায় পাঁচ শতাধিক নারী পুরুষ অংশ নেয়। মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ বাউফল উপজেলা শাখার সভাপতি বাউফল কালী বাড়ি কমিটির সভাপতি এবং বাউফল পৌরসভার প্রথম প্রশাসক জীবন কৃষ্ণ সাহা, কালী বাড়ি কমিটির উপদেষ্টা বিশিষ্ট সমাজসেবক অশীতিপর বৃদ্ধ সত্য রঞ্জন সাহা, পূজা উদযাপন পরিষদ বাউফল উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক অতুল চন্দ্র পাল, দাসপাড়া ইউনিয়নের বিশিষ্ট সমাজসেবক অশীতিপর বৃদ্ধ কাঞ্চন ডাক্তার, দাসপাড়া রাধামাধব মন্দিরের সভাপতি খোকন চন্দ্র সাহা এবং শিক্ষিকা মাধু রানী চাকলাদার প্রমূখ। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তরা বলেন, বাউফলের দাসপাড়া ইউনিয়নের মৃত. সুখ রঞ্জন নট্টের ছেলে দীর্ঘদিন পূর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করে তাঁকে মা ডাকেন। সেই থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সূধীরকে খুব ¯েœহ করে আসছেন। অত্যন্ত বিনয়ী এবং সমাজসেবক সূধীর নট্ট বাউফল বাজারে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন। আদৌ প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে সূধীর কোথাও কোন কাজ করছেন না এবং প্রভাব বিস্তারেরও চেষ্টা করছেন না। কিন্তু জমিজমার বিরোধকে কেন্দ্র করে শিবরতন নট্ট নামের সূধীরের বাড়ির এক যুবক প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে গত ২২ মে প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে সূধীর নানা অপকর্ম করছেন উল্লেখ করে বাউফল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন। যাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট এবং উদ্দেশ্যপ্রনোদিত। বক্তরা ওই মিথ্যা সংবাদ সম্মেলনের তীব্র প্রতিবাদ করেন এবং সত্য ঘটনা উদঘাটনের জন্য প্রশাসনের সহায়তা কামনা করেন। বক্তরা তাদের বক্তব্যে আরো বলেন, দু’একজন বর্ণচোরা রাজনৈতিক ব্যাক্তিদের প্ররোচনায় ওই সাংবাদিক সম্মেলন করা হয়েছে। পক্ষান্তরে এটা প্রধানমন্ত্রীর সম্মান হানির অপচেষ্টা করা হয়েছে। এব্যপারে সূধীর নট্ট জানান, জমিজমা নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। বহুবার শালিস করার কথা থাকলেও শিবরতন নট্টরা শালিস বৈঠকে হাজির হচ্ছেনা। কিন্তু এনিয়ে আমাদের সাথে কোন ঝগড়া বিবাদও হয়নি। কোন কুচক্রী মহলের ইঙ্গিতেই ওই সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার মা। এটা গোপণ করার কিছু নাই। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে আমি কোন অপকর্ম করেছি কী না সেটা খুঁজে বের করার আহবান জানাচ্ছি। বাউফলের এমপি আ.স.ম. ফিরোজ বলেন, আমার রাজনৈতিক জীবনে সূধীর প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করে কোন অপকর্ম করেছেন কিংবা কোথাও প্রভাব বিস্তার করেছেন এমনটা শুনিনি। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার।

Previous articleশাহজাদপুরে মুক্তিযুদ্ধকালিন অধিনায়ক মির্জা আব্দুল বাকী’র মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে ৭ দিনের বিশেষ লকডাউন ঘোষণা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।