বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে আকস্মিক বাড়তি বিলে ভোগান্তিতে পড়েছে পল্লি বিদ্যুতের গ্রাহকরা। বিগত ছয় মাসের মধ্যে মে মাসের বিদ্যুৎ বিলে পাঁচ থেকে দশ গুণ বেশি বিল করায় সাধারণ গ্রাহকরা বিপাকে পড়েছেন। বিশেষ করে দরিদ্র গ্রাহকদের মধ্যে হতাশা দেখা দিয়েছে। পল্লি বিদ্যুতের মিটার রিডারদের অবহেলায় গ্রাহকদের মে মাসে বিল বেশি হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তারা। গ্রাহকদের একত্রে বেশি বিল করায় যথাসময়ে পরিশোধ করার বিষয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। ফলে তারা সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। জানাগেছে বরিশাল পল্লি বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অধীনে মুলাদী জোনাল অফিসের আওতায় প্রায় ৭৬ হাজার গ্রাহক রয়েছেন। অধিকাংশ গ্রাহকদের মে মাসে পাঁচ থেকে দশগুণ বেশি বিদ্যুৎ বিল করা হয়েছে। স্বচ্ছল গ্রাহকদের কোনো সমস্যা না হলেও দরিদ্র ও হতদরিদ্র প্রায় বিশ সহ¯্রাধিক গ্রাহক বাড়তি বিল নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। মুলাদী সদর ইউনিয়নের দড়িচর বজায়শুলি গ্রামের আজাহার বেপারী জানান, এপ্রিল মাসে তার বিদ্যুৎ বিল হয়েছিলো ২৪২ টাকা। মে মাসে বিদ্যুৎ বিল করা হয়েছে ১৮৮০টাকা। এক মাসের ব্যবধানে এত বিল হওয়ায় তিনি পল্লি বিদ্যুতের মুলাদী জোনাল অফিসে যোগাযোগ করেছেন। সেখানে পল্লি বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ তাকে কোনো সমাধান দেননি। একই গ্রামের সিরাজ সিকদার জানান, গত জানুয়ারি মাস থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত তার বিদ্যুৎ বিল হয়েছিলো ২শত থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে। কিন্তু মে মাসে তাঁর বিদ্যুৎ বিল হয়েছে ১২১৮ টাকা। মুলাদী সদর ইউনিয়নের দড়িচর গ্রামের মুজিবুর রহমান সরদার জানান, এপ্রিল মাসে তিনি ২৪৬টাকা বিল পরিশোধ করেছেন। মে মাসে বিল করা হয়েছে ১০৯৩ টাকা। আনোয়ার সরদার জানান, বিগত এক বছর ধরে তার বিদ্যুৎ বিল হতো চারশত থেকে পাঁচশত টাকার মধ্যে। মে মাসে তাঁর বিল করা হয়েছে ১৬৫০টাকা। একাধিক গ্রাহক জানান, পল্লি বিদ্যুতের মিটার রিডারগণ অধিকাংশ মিটার রিডিং সংগ্রহের জন্য গ্রামে যান না। তাঁরা বাসায় বসে বসে মিটার রিডিং লিখে অফিসে জমা দেন। ফলে পিছনের মাসগুলোতে কিছুটা কম বিদ্যুৎ বিল এসেছে। কিন্ত অর্থবছরের শেষ মাসে এসে প্রকৃত মিটার রিডিং লেখার ফলে তার বিদ্যুৎ বিল বাড়তি এসেছে। এ ব্যাপারে মুলাদী পল্লি বিদ্যুতের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আনন্দ কুমার কু-ু জানান, কোনো গ্রাহকের ভুতুরে বিল করা হয়নি। প্রকৃতপক্ষে মিটারে যে রিডিং রয়েছে সেই অনুযায়ী অফিস থেকে বিল করে দেওয়া হয়েছে। মিটার রিডিং এর বাহিরে কোনো গ্রাহকের কাছ থেকে এক টাকাও বাড়তি নেওয়া হবে না।

Previous articleসরকারি কবরস্থান ভূমি দস্যুর দখলে, গ্রামবাসীকে কবর দিতে বাধা
Next articleভাড়া বাসায় ৬ মাস ঘর সংসার করার পর স্ত্রীর মর্যাদার দাবীতে অর্ধাহারে অনাহারে কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।