এ.এস. লিমনঃ কুড়িগ্রামের রাজারহাটে তাহমিনার প্রেমের ফাঁদে ধনাঢ্য তরুণারা। ১০ জুলাই শনিবার সন্ধ্যায় তিস্তা সেতু সংলগ্ন এলাকায় মাসুম মিয়া (২৫) নামে এক যুবককে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বড় অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার সময় তাহমিনা আক্তার (১৮) কে আটক করেছে স্থানীয়রা।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিমদেবত্তর এলাকার আবু তাহের এর কন্যা তাহমিনা আক্তার (১৮) দীর্ঘদিন ধরে ধনাঢ্য তরুণদেরকে টারর্গেট করে প্রেম বন্ধুত্ব ও আড্ডার মাধ্যমে নিজের রূপ-যৌবনের ফাঁদে ফেলে আসছে। পরে বন্ধুত্ব ও প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে তুমুল আড্ডা দেয় তাহমিনা। ছুটে বেড়ায় মাস্তি করে। এমনকি ডেকে নেয় তার নিজ বাসায়। সেখানেই ঘটে মূল ঘটনা। ওই বাসার কোন একটি রুমে বিছানার মধ্যে নগ্ন হয়ে শুয়ে থাকে প্রেমিক বা বন্ধুর সঙ্গে। এর মধ্যেই তাহমিনার একদল চক্র ঘরে ঢুকে প্রেমিক তরুণের নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারণ করে জিম্মি করে এবং হুমকি-ধমকি দেয় নগ্ন ছবি ও ভিডিও ভাইরাল করার। দাবি করা হয় মোটা অঙ্কের টাকা। হুমকি-ধমকিতে সামাজিক মর্যাদা নষ্ট হওয়ার ভয়ে কাবু তরুণরা। পরে তারা বিপুল অর্থ হাতে নিয়ে মুক্তি দেয় তরুণদেরকে। এভাবেই একের পর এক প্রেমের অভিনয়ে নগ্ন ছবি ধারণ ও ব্ল্যাকমেইলে সফল হচ্ছিল ওই তাহমিনা। ১০ জুলাই শনিবার সন্ধ্যায় তিস্তা দালালপাড়া এলাকার হায়দার আলীর পুত্র মাসুম মিয়া (২৫) কে তাহমিনা তিস্তা সেতু সংলগ্ন এলাকায় ডেকে এনে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। ওই সময় তাহমিনা’র প্রতারক চক্রটি ভিডিও ধারন করে মাসুম মিয়াকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ১ লাখ টাকা দাবী করে। এরই এক পর্যায় তাহমিনা ও মাসুম মিয়া বাক-বিতন্ডে জড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা এসে তাদেরকে আটক করে। এছাড়াও সম্প্রতি তাহমিনার ব্ল্যাকমেইলের শিকার লালমনিরহাট জেলার চরগুকুন্ডা ইউপির আফজালনগর এলাকার তৈয়ব আলীর ছেলে আতিকুর রহমান (২৪) ও রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউপির পশ্চিমদেবত্তর এলাকার তিরি চন্দ্রের পুত্র নির্মল চন্দ্র (২৬) এর সঙ্গে শারিরীক সর্ম্পকে লিপ্ত হয়ে নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারন করে একইভাবে মুক্তিপণ দাবী করে। তারা মুক্তিপণ দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের বিরুদ্ধে তাহমিনা বাদী হয়ে লালমনিরহাট থানায় একটি মিথ্যা ধর্ষন মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তার করে লালমনিরহাট জেল হাজতে প্রেরণ করে। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মহুবর রহমান বলেন, তাহমিনার প্রেমের ফাঁদে শতশত ধনাঢ্য তরণরা নি:শ্ব হয়েছে। এ ছাড়াও এলাকার অনেক নির্দোষ যুবক ধর্ষন মামলায় জেল হাজতে রয়েছে। এ ঘটনায় ১০ জুলাই শনিবার রাতে গ্রাম-শালিশ বৈঠকে সিদান্ত গৃহিত হয় তাহমিনা সমস্ত মিথ্যা মামলা উড্র করে নিবে এবং এ ধরনের কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকবে মর্মে মুশলেখা দিয়ে তাহমিনারকে তার পিতা আবু তাহেরের হাতে তুলে দেয়া হয়।

Previous articleপাঁচবিবিতে চাঁদাবাজির অভিযোগে এসআই রাফি হাসান সাময়িক বরখাস্ত
Next articleরুপগঞ্জে অগ্নিকান্ডে শ্রমিক মৃত্যুর প্রতিবাদে জয়পুরহাটে মানববন্ধন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।