বাংলাদেশ প্রতিবেদক: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নোয়াখালীর হাতিয়ার ৯নং বুড়িরচর ইউনিয়নে পরিষদ নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন।

আহতরা হলো, উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের মৃত আবুল হাসেমের ছেলে আব্দুর রহমান (২৪) মৃত নুরুল আমিনের ছেলে মো.আনোয়ার হোসেন (২৭), মৃত সাইফুল ইসলামের ছেলে সাজ্জাদুল ইকবাল (৩৬) গিয়াস উদ্দিনের ছেলে বাবর উদ্দিন (৪৫) হাফেজ মো.ইউসুফের ছেলে আমির হামজা (৩৪)।

গতকাল শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের কালিরচর গ্রামের ইব্রাহীম মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত কিছু দিন ধরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর অনুসারীদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এর জের ধরে শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের কালিরচর গ্রামের ইব্রাহীম মার্কেটের সামনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী জিয়া আলী মোবারক কল্লোল ও আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফখরুল ইসলামের অনুসারীরা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। ওই সহিংসতায় উভয় পক্ষের ৫জন আহত হয়। এদের মধ্যে আব্দুর রহমান ও বাবর উদ্দিন গুরুতর আহত হওয়ায় তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপর ৩ জন হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনার জেরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে উভয় পক্ষের অনুসারীরা পুনরায় সাগরিয়া বাজারে মুখোমুখি অবস্থান নেয়। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Previous articleপীরগাছায় ২০ বছরের বড় চাচীকে বিয়ে করলেন ভাতিজা
Next articleনোয়াখালীতে মায়ের ওপর অভিমান করে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রের আত্মহত্যা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।