ওসমান গনি: কুমিল্লা চান্দিনার ৮নং বাতাঘাসী ইউনিয়নের বাতাঘাসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা সানাইয়া আক্তার কে বরখাস্ত করা হয়েছে।১৪ই সেপ্টেম্বর কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো.আব্দুল মান্নান এ নির্দেশ দেন।গত দেড় বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিনা অনুমতিতে অনুপস্থিতির অভিযোগে কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান শিক্ষিকা সানাইয়া আক্তারের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সত্যতা পেয়ে তাকে অবহিত করে তার ঠিকানা বরাবর বরখাস্তের নোটিশ পাঠান।

জানা যায়,সানাইয়া আক্তার গত ২০০৭ সালের ২রা জুলাই এসে বাতাঘাসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মস্থলে যোগ দেন।যোগদানের পর নিয়মিত কর্মস্থলে যেতেন।কিন্তু গত ২০২০ সালের ৩রা ফেব্রুয়ারির পরই অসুস্থজনিত কারণে তিনি ৩ দিনের ছুটি নেন।এই ৩ দিনের ছুটি তার আজও শেষ হয়নি।তিনি আর কর্মস্থলে যোগ দেননি।কাউকে না জানিয়ে তিনি কর্মস্থলে প্রায় ১৮ মাস অনুপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে সানাইয়া আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,চান্দিনা গ্রামের বাড়িতে থাকাকালীন স্কুলে যাওয়া সম্ভব হতো।এখন পরিবার নিয়ে ঢাকা থাকতে হচ্ছে।তাই পারিবারিক কারণেই এখন আর চাকুরি করা সম্ভব হচ্ছে না।তবে কর্তৃপক্ষ চাইলে রিজাইন লেটার পাঠাব।

বাতাঘাসী স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা ফেরদৌসি বেগম বলেন,মাতৃকালিন ছুটিতে গিয়ে সহকারি শিক্ষিকা সানাইয়া আক্তার আর স্কুলে আসেননি।তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিলাম।অনেক দিন পর সে ফোন করে বলে পারিবারিক কারণে আর স্কুলে আসা সম্ভব নয়।এমতাবস্থায় আমি বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করি।

চান্দিনা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন,এলাকাবাসী,অভিভাবকসহ সুশীল সমাজের অভিযোগের ভিত্তিতে সানাইয়া আক্তারকে স্কুলে না আসার কারণ জানিয়ে তাকে কারণ দর্শানোর জন্য ডাকযোগে অনেক নোটিশ পাঠানো হয়েছিল।তিনি কোন উত্তর দেন নি।তাই তার ওপর শাস্তি আরোপ করে দাপ্তরিক চিঠি ইস্যু করে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের পূর্বক তাকে বরখাস্ত করে প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরের কর্মকর্তারা।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুল মান্নান মুঠোফোনে জানান,সানাইয়া আক্তার চান্দিনা উপজেলার বাতাঘাসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা ছিলেন। প্রায় ১৮ মাস বিদ্যালয়ে বিনা অনুমতিতে অনুপস্থিত থেকে বেতন-ভাতা আদায় করেছেন। তাকে বারবার তলব করা হলেও তিনি আসেননি। এ কারণেই সরকারি কর্মচারী(শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা ২০১৮ এর বিধি ৪(৩)(গ) মোতাবেক সানাইয়া আক্তার কে কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে চূড়ান্ত বরখাস্ত করা হয়েছে এবং পদটি শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে।

Previous articleচান্দিনায় পারিবারিক কলহের জের ধরে গৃহবধূর আত্মহত্যা
Next articleকেন্দুয়ায় ৩০ জুয়াড়ি আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।