জি.এম মিন্টু: কেশবপুরে জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় মহিলাসহ ৩ জনকে গুরুত্ব জখম হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে ৯ জনসহ অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বারুইহাটী গ্রামের ইছাক আলী সরদারের ছেলে নাসির উদ্দিনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বসত ভিটার জমি নিয়ে একই গ্রামের প্রতিপক্ষ জিন্নাত আলী সরদারের ছেলে আব্দুর রশিদের বিরোধ চলে আসছিল। তারই জের ধরে বুধবার দুপুরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে রশীদ গং হাতে কুড়াল, দা, লোহার রড, সাবল, হাতুড়ী, বাঁশের লাঠি, স্টিলের পাইপসহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে নাসির উদ্দিনের বসত বাড়ির সামনে বাগানের জমিতে প্রবেশ করে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ পালা কাটতে শুরু করে। ওই সময় নাসির উদ্দিন, তার ছোট ভাই শাহাবুদ্দীন সরদার, ফুফী সখিনা বেগম প্রতিপক্ষদের গাছ কাটায় বাধা দিলে আব্দুর রশিদ গং নাসির উদ্দিনের পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। হামলায় নাসির উদ্দিন(৪৮), স্ত্রী হিরা খাতুন (৩৮) ও ছেলে হালিম (১৬) আহত হয়। মারপিট করার সময় হিরা খাতুনের গলায় থাকা ৩৫ হাজার টাকা মূল্যের আট আনা ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন টান মেরে নিয়ে নেয়। এছাড়াও প্রতিপক্ষরা বসত ঘরের ছাউনীর টালি ও বেড়ার টিন ভেঙ্গে প্রায় ৫ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করেছে। আহত ৩ জনকে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ রোরহান উদ্দীন জানান, অভিযোগ পেয়েছি,তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে

Previous articleরাজাপুরে ধ্রুবতারা’র উপজেলা কমিটি অনুমোদন
Next articleআসামে মুসলিম হত্যার ভিডিও ভাইরাল, সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।