বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার স্বর্ণদ্বীপে আটক ৪৭ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে ভাসানচর ক্যাম্প অফিসে সোপর্দ করেছে কোস্টগার্ডের সদস্যরা। এ ঘটনায় ভাসানরচর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে।

আটককৃত রোহিঙ্গাদের মধ্যে ১০জন পুরুষ,১২জন মহিলা ও ২৫জন শিশু রয়েছে। তারা আব্দুল হামিদ (৩২), মহছেনা (২৮) জান্নাতআরা (১১) ইসমত আরা ( ৬) সাদিয়া আক্তার (৪) শওকতআরা (৯ মাস) সোনা আহাম্মদ (২৯) মো.ওসমান (৯) নুরু বেগম (৩০) সেনোয়ারা (২০) মিনু য়ারা (৩) সামছু আলম (৩৫) নজরুল ইসলাম (৩০) আয়েশা বেগম (২৯) আব্দুল্লাহ (৮) আব্দুর রহমান (৬) জান্নাতুল ফেরদৌস (৩) শাহানা (১৭) মো.জাহিদ হোসেন (২৭) নুরু বেগম (২২) মো.হামিদ হোসেন (৯) মো.কামাল হোসেন (৮) আছমা বিবি (৪) রিশমা বিবি (৩) রুপবাহান (৬৩) আমির হোসেন (৩০) নবীন সোনা (২৮) সৈয়দ নুর (১০) পারভিন আক্তার (৭) তসমিন আরা (৫) জয়নাল (৩২) মরজিনা (৩০) পারভিন আক্তার (২০) ইমমান হোসেন মাহমুদ (১২) মো.নয়ন (১৩) আছমা (৭) তাসকিন (২) রহমত উল্যা (৩৫) রুজিনা (২৫) মো.আলী (১৯) সহ ৪৭জন রোহিঙ্গা।

বুধবার (৬ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে কোস্টগার্ডের একদল সদস্য তাদেরকে ভাসানচর ক্যাম্প অফিসে সোপর্দ করে। এর আগে, গতকাল মঙ্গলবার সকালের দিকে তাদেরকে স্বর্ণদ্বীপে দেখে স্থানীয় এলাকাবাসী পুলিশকে অবহিত করে।

নোয়াখালী জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ৪৭ রোহিঙ্গাকে ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প অফিসে সোপর্দের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এসপি আরো জানান, গত ৩ অক্টোবর ভাসানচর আশ্রয়ন প্রকল্প-৩ থেকে রোহিঙ্গা ৪৭জন রোহিঙ্গা নাগরিক পালিয়ে যাওয়ার সময় হাতিয়ার স্বর্ণদ্বীপ নামক স্থানে পৌঁছলে পলায়নে সহায়তাকারী বোট মাঝি মল্লা পলায়নকৃত রোহিঙ্গাদেও রেখে চলে যায়। পরবর্তীতে গতকাল মঙ্গলবার ৪৭ জন রোহিঙ্গা স্বর্ণদ্বীপে আটকে আছে বলে সংবাদ পাওয়া যায়। তারা ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালানোর জন্য বের হলে বোটের মাঝি কৌশলে তাদের সেখানে নামিয়ে দিয়ে চলে যায়। পরে খবর পেয়ে তাদেরকে আটক করে ট্রিপলআরসি অফিসে নিয়ে আসা হয়।

Previous articleতাহিরপুরে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে মতবিনিময় সভা
Next articleচার দিনের ছুটির কবলে বেনাপোল বন্দর
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।