মোঃ জালাল উদ্দিন: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে কথিত বন্দুকযুদ্ধে শনিবার গভীর রাতে দুই ব্যক্তির নিহতের কথা জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৯)।

নিহতরা হলেন- কমলগঞ্জ উপজেলার প্রতাপী এলাকার আব্দুল আহাদ নাইছ মিয়ার ছেলে মোঃ তোফায়েল মিয়া (৩৫) ও একই উপজেলার জগনশালা এলাকার মৃত মনির মিয়ার ছেলে মোঃ শহীদ মিয়া (৪০)।

ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৯ এর দাবি, শনিবার রাত ২টার দিকে উপজেলার কালাপুর ইউনিয়নের মাইজদিহি পাহার ও মৃত্তিঙ্গা চা বাগান এলাকায় র‌্যাব-৯ এর সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ওই দুই ব্যক্তি নিহত হন।
র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বসু দত্ত চাকমার, বলেন
কয়েকজন সন্ত্রাসী অবস্থান করছে, এমন গোপন খবর পেয়ে র‍্যাবের একটি টিম ঘটনাস্থলে গেলে এসময় ১৪ থেকে ১৫ জন সন্ত্রাসী র‍্যাবের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। র‍্যাব সদস্যরা এসময় আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। পরে সেখান থেকে দুইজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়।

র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা আরও জানান, তারা ঘটনাস্থল থেকে দুটি রিভলবার-সহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে ও তাদের তিন সদস্য ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আহত হয়েছেন। তবে আহত র‌্যাব সদস্যদের নাম-পরিচয় ও তারা কোথায় চিকিৎসা নিয়েছেন তা উল্লেখ না করে এ বিষয়ে সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে পরে জানানোর কথা বলেন তিনি।

তবে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ব্যক্তিদের মৃত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয় বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

শ্রীমঙ্গল থানার উপ পরিদর্শক মোহাম্মদ জামাল জানান, র‌্যাব -৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্প থেকে তাদের দুটি লাশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

কমলগঞ্জ থানা পুলিশ এ বিষয়ে কোনো বক্তব্য দিতে অপরাগতা প্রকাশ করেন। তবে ওই থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, গত ৩১ অক্টোবর দুপুর দেড়টার দিকে কমলগঞ্জের চৈত্রঘাটে সন্ত্রাসীরা একটি মাইক্রোবাসে এসে প্রকাশ্যে ব্যবসায়ী নেতা নাজমুল হাসানকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন। ওই দিন সন্ধ্যা সাতটার দিকে সিলেটের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত নাজমুলের বড় ভাই শামসুল হক বাদী হয়ে ১৪ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জনকে আসামি করে কমলগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

পরে সিসিটিভি ফুটেজ ফেসবুকে ভাইরাল হলে আসামিদের শনাক্ত করতে মাঠে নামে পুলিশ। এ পর্যন্ত পুলিশ কমলগঞ্জ, রাজনগর ও ঢাকা থেকে আট আসামিকে গ্রেফতার করেছে। এরইমধ্যে কয়েকজন আসামি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

নিহতরা কমলগঞ্জের ব্যবসায়ী নাজমুল হাসান হত্যা মামলার আসামি। নিহত মোঃ তোফায়েল ও মোঃ শহীদ মিয়া ওই মামলার ২ ও ৮ নং আসামি ছিলেন।

Previous articleসুবর্ণচরে ডাকাত সন্দেহ ২ যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ
Next articleবেগমগঞ্জে দেশীয় অস্ত্র ও ককটেলসহ সন্ত্রাসী ইমমাইল গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।