ফেরদৌস সিহানুক শান্ত: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে হঠাৎ পাগলা নদীতে ধসে পড়েছে প্রায় ৩০টি বসতবাড়ি। বেশকিছু বাড়ির মাঝামাঝি স্থানে দেখা দিয়েছে বিশাল ফাটল। এরইমধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে বেশ কিছু পাকা বাড়ি। বর্তমানে ঘুম হারাম ওই গ্রামের মানুষের। অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বাসিন্দাদের।

শুক্রবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়নের জোহরপুর গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, রুপচাঁন হালদার, তপন হালদার, ডাবলু, দয়াল হালদার, নজরুল, জাহাদুর ও রশিদেরসহ বেশ কিছু বসতবাড়িতে এসব ফটল দেখা দিয়েছে।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ৩০ বছর আগে গড়ে ওঠে এই গ্রাম। কিন্তু হঠাৎ গত মঙ্গলবার থেকে প্রায় ৩০টি বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে। বেশকিছু পাকাঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে।
বাড়ির মালিকরা বলছেন, সারা জীবনের কষ্টার্জিত জমানো টাকা খরচ করে বাড়ি বানিয়েছিলেন। পরিবার পরিজন নিয়ে সুখেই কাটছিল তাদের সাজানো সংসার। কিন্তু হঠাৎ করে তাদের সে স্বপ্ন চুর্ণবিচুর্ণ হয়ে যাচ্ছে, দেখার কেউ নেই।
রূপচাঁন হালদার বলেন, গত বুধবার সকালে বাড়ির উঠানে একটি ফাটলের দৃশ্য দেখতে পাই। কিন্তু গুরুত্ব দিইনি। হঠাৎ মঙ্গলবার সকালে দেখি আমার একটি ছাদের ঘরসহ টয়লেট ভেঙে নদীতে পড়ে গেছে। আমি একজন জেলে, সারাজীবনের জমানো টাকায় এই বাড়ি বানিয়েছিলাম। এখন আমি কই থাকবো?
তপন হালদার বলেন, আমাদের বাড়ির পেছনেই পাগলা নদী আর পাশেই রয়েছে কানসাট স্লুইস গেট। কিন্তু এতদিন স্লুইস গেটটি বন্ধ ছিল হঠাৎ গেটটি খুলে দেয়ায় দ্রুত পানি বাইরে চলে যায়, তার সঙ্গে সঙ্গেই আমাদের ঘরবাড়ি ধসে যেতে থাকে।

মোবারকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান তৌহিদুর রহমান বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবহেলার কারণে ৩০টি পরিবার আজ পথে বসতে যাচ্ছে। স্লুইস গেট খোলার আগে পার্শ্ববর্তী বাসিন্দাদের কথা ভাবতে হতো।
শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব আল রাব্বি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কৃর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Previous articleগাজীপুরে হুমায়ূন আহমেদের ৭৩তম জন্মদিন উদযাপন
Next articleরংপুরে ৬0 কেজি পিরানহা মাছ জব্দ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।