গিয়াস কামাল: আসেছ ২৮ নভেম্বর সোনারগাঁও উপজেলার ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে ৮ ইউনিয়নের মধ্যে ৪ টিতেই বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত ইউপিতে একাধিক চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করলেও অজানা কারণে এবং উপর মহলের হস্তক্ষেপে তারা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন।

জানায় যায়, ইউপি নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী ২রা নভেম্বর মনোনয়ন জমা ও সংগ্রহের শেষ তারিখ এবং যাচাই-বাছাই ৪ নভেম্বর ছিল। যাছাই- বাছাইয়ে অনেক মনোনয়ন প্রার্থী বাতিল হয়। আবার অনেক বিভিন্ন উপর মহলের চাপে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। সোনারগাঁয়েও ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে প্রথমে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হোন পিরোজপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম, এরপর জাহিদ হাসান জিন্নাহ। জাহিদ হাসান জিন্নাহর এলাকায় তিনি ছাড়াও আরো ২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। কিন্তু পরে তারা অজ্ঞাত কারনে প্রত্যাহার করে দেন। জিন্নাহ পর সাংসদ শামীম ওসমান ও উপর মহলের হস্তক্ষেপে নির্বাচিত হোন কাঁচপুর চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর এবং বারদী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী লায়ন বাবুল ভূইয়া। কাঁচপুরে শামীম ওসমানের অনুরোধে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন সাবেক ছাত্রলীগের আহবায়ক মাহবুব খাঁন। অবশেষে বারদী ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন জাতীয়পার্টির মনোনীত প্রার্থী দাইয়ান মেম্বার। তবে দাইয়ান উপর মহলের চাপ ও অর্থের বিনিময়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন বলে অভিযোগ উঠে বিভিন্ন মহলে। বাকি ৪টি ইউপিতে নির্বাচন হবে নাকি আরো বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় হবে তা দেখার অপেক্ষা করতে সোনারগাঁবাসী।

Previous articleপীরগাছায় ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ
Next articleসিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় ৭০ বেসামরিক লোক নিহত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।