কায়সার হামিদ মানিক: কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পরিত্যক্ত ঘরের মেঝে থেকে ‘নিখোঁজ’ রোহিঙ্গা নেতা সৈয়দ আমিনের (৪০) লাশ উদ্ধার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্যরা।

আমিন টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ২১ নম্বর চাকমারকূল রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের মুছা আলীর ছেলে। তিনি ওই শিবিরের সি-৪ ব্লকের সাব-মাঝি ছিলেন।

শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় মাটি খুঁড়ে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ৮-এপিবিএনের অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শিহাব কায়সার খান।

তিনি জানান, রোহিঙ্গা নেতা আমিন নিখোঁজের ঘটনায় পুলিশ অনুসন্ধান চালিয়ে তিনজনকে আটক করা হয়। তারা হলেন- উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের ১৪ নম্বর হাকিমপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের ই-৩ ব্লকের বাসিন্দা মো. সালামের ছেলে মোহাম্মদ ইসলাম (২২), একই ব্লকের মো. কাশেমের ছেলে আবদুল মোনাফ (২৬) ও মোহাম্মদ সালামের ছেলে মো. ইলিয়াছ (২৮)।

পরে তাদের দেওয়া স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পরিত্যক্ত ঘরের মেঝের মাটি খুঁড়ে আমিনের লাশ তোলা করা হয়। পরে আমিনের স্ত্রী হাসন বশর স্বামীর পরনে থাকা কাপড়, প্যান্ট, বেল্ট দেখে লাশ শনাক্ত করে।

এর আগে ১৭ জানুয়ারি চারজন অপহরণকারীরা রোহিঙ্গা শিবিরের ঘর থেকে কাজের কথা বলে আমিনকে নিয়ে যান। পরে অপহরণকারীরা আমিনকে হাত-মুখ বেঁধে অজ্ঞাতনামা স্থানে নিয়ে যান। পরে পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ হিসেবে ৮০ হাজার টাকা দাবি করেছিলেন।

মোহাম্মদ শিহাব কায়সার খান জানান, আমিনের লাশ তোলার করার পর ময়নাতদন্তের জন্য উখিয়া থানা–পুলিশের মাধ্যমে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Previous articleস্কুলশিক্ষকের পা ছুঁয়ে সালাম করলেন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান
Next articleপঞ্চগড়ে তাপমাত্রা ৯ ডিগ্রি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।